সেপ্টেমবর মাস থেকেই কি লাগাম পরানো যাবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণে? কিছুটা হলেও তেমনই ইঙ্গিত ছিলেন বিশ্বের দ্বিতীয় ধনী মানুষ বিল গেটস। একটি সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন যদি সবকিছু ঠিক থাকে তাহেল আগামী সেম্পেম্বর মাস থেকে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধ তৈরি করতে পারা সম্ভব। বিল গেটসের কথায় ইতিমধ্যে পরীক্ষা করে জীবানু সম্পর্কে সাতটি তথ্য সামনে এসেছে। যা প্রতিষেধক তৈরিতে সাহায্য করবে। আর যদি সবকিছু ঠিক ভাবে চলে তাহলে আগামী বছর থেকেই এই প্রতিষেক পর্যাপ্ত পরিমানে তৈরি করা সম্ভব বলেও আশাপ্রকাশ করেছেন। 

বিল গেটসের কথায ডাক্তার ফৌসির সঙ্গে তিনি একমত যে আগামী ১৮ মাসের মধ্যে করোনার প্রতিষেধক তৈরি করা সম্ভব। ডাক্তার ফৌসি ন্যাশানাল অ্যালার্জির পরিচালক। পাশাপাশি তিনি হোয়াই হাউসের  করোনাভাইরাস মোকাবিলায় তৈরি টাস্ক ফোর্সেরও সদস্য।  ওই সাক্ষাৎকারে বিল গেটস নমুনা পরীক্ষা নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তাঁর কথায় ঠিক মত নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে না। 

মাইক্রসফট কর্পোরেশনের সহ প্রতিষ্ঠা বিল গেটস। বিশ্ব জুড়ে সমাজ সেবা মূলক কাজ কর্মেই তিনি প্রথম সারিতে। ইতিমধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের বিরুদ্ধে প্রায় ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন জরাল দান করেছেন। আগেই তিনি জানিয়েছিলেন, প্রতিষেধক তৈরির

আরও পড়ুনঃ ইদের আগেই বিশ্বকে করোনাভাইরাস মুক্ত করতে আরও প্রার্থনা, মন কি বাতে মন্তব্য মোদীর ...

আরও পড়ুনঃ শুভেন্দু অধিকারীর গড়ে কেন্দ্রীয় দল, খতিয়ে দেখছে পাঁশকুড়া, তমলুক আর হলদিয়া হাসপাতাল ...
কাজে তাঁর সংস্থা অর্থ প্রদান করেছে।  ওই সাক্ষাৎকারে বিল গেটস করোনাভাইরাসের সংক্রমণের মোকিবিলায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাজেরও ভূয়ষী প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেছেন আন্তর্জাতিক এই মহামারী রুখতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা উপযুক্ত সময় উপযুক্ত পদক্ষেপ নিয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে দেওয়া অনুদানে এতদিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরেই ছিল তাঁর সংস্থার নাম।