ফের করোনার দাপটে ছাড়খাড় হয়ে যাচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। টানা দুদিন রেকর্ড সংখ্যক বৃদ্ধি ঘটল তাদের একদিনে নতুন কোভিড কেসের সংখ্যার। রেকর্ড হল কোভিডে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যাতেও। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বলছে, বৃহস্পতি থেকে শুক্রবারের মধ্যে আমেরিকায় ২,২৫,২০১ জন নতুন করোনা রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। আর একি সময়ে সেই দেশে কোভিড-জনিত কারণে মৃত্যু হয়েছে ২,৫০৬ জনের।

বিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারিতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ আমেরিকা। আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃত্যুর সংখ্যা - দুই তালিকাতেই শীর্ষে আছে তারা। মাঝে করোনার দাপট কিছুটা কমলেও সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলিতে নাটকীয় পুনরুত্থান ঘটেছে মহামারির। ফের চড়চড়িয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের তালিকা। গত একমাসে তিনবার একদিনে নতুন সংক্রমণের সংখ্যা ২ লক্ষ ছাড়িয়েছে। বুধ থেকে বৃহস্পতিবারের মধ্যে ছিল ২,১০,০০০। সেটাই ছিল এক দিনে সর্বোচ্চ নতুন রোগীর সংখ্যার রেকর্ড। তার পরদিনই সেই রেকর্ড ভেঙে গেল।

আরও পড়ুন - 'কৃত্রিম সূর্য' তৈরি করে ফেলল চিন, তাপমাত্রা আসল সূর্যের থেকেও ১০ গুণ বেশি

আরও পড়ুন - চিন্তায় রেখেছে কেরল-সহ ৩ রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি, ৯৬ লক্ষের গণ্ডি ছাড়ালো মোট রোগীর সংখ্যা

আরও পড়ুন - ট্রাম্পের হাতে রইল না আর কোনও ট্রাম্পকার্ড, আনুষ্ঠানিকভাবে জয় নিশ্চিত করলেন বাইডেন

অন্যদিকে, বুধ থেকে বৃহস্পতিবারের মধ্যে কোভিডে মৃতের সংখ্যা ছিল ২,৮০৪। সেটাই আমেরিকায় একদিনে কোভিডে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এদিন, তার থেকে মৃতের সংখ্য়াটা সামান্য কমলেও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন সামনের কয়েক দিনে নতুন আক্রান্ত ও মৃত - দুই ক্ষেত্রেই আরও অনেক রেকর্ড ভাঙা-গড়া চলবে।    

এই করোনার নাটকীয় ঢেউ-এর জন্য মার্কিন কর্তৃপক্ষ আঙুল তুলছে নাহগরিকদের দিকেই। গত সপ্তাহে মার্কিন মুলুকে ছিল থ্যাঙ্কসগিভিং-এর ছুটি। স্বাস্থ্য কর্তারা বারবার সতর্ক করেছিলেন, করোনার দাপট কমেছে মনে এই নয়, করোনা একেবারে চলে গিয়েছে। তাই বাড়িতেই থাকতে অনুরোধ করা হয়েছিল মার্কিন নাগরিকদের। কিন্তু অধিকাংশই সেই পরামর্শ না মেনে, ছুটি কাটাতে বিভিন্ন পর্যটনস্থলে ভ্রমণ করেছিলেন। সেই সময়ই মার্কিন স্বাস্থ্য আধিকারিকরা সংক্রমণ বৃদ্ধির বিষয়ে সতর্ক করেছিলেন। কার্যক্ষেত্রে তাই হয়েছে। কোভিড হাসপাতালগুলি উপচে পড়তে শুরু করেছে আক্রান্ত ব্যক্তি ভিড়ে। বিশেষত ক্যালিফোর্নিয়া, ফ্লোরিডা, নিউইয়র্ক এবং টেক্সাসের মতো জনবহুল রাজ্যগুলিতে।