নাবালিকার শ্লীলতাহানির অভিযোগ কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের বিরুদ্ধে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই অভিযুক্ত জওয়ানদের মারধোর করে স্থানীয়রা। দীর্ঘক্ষণ ধরে চলে রামনগর থানায় বিক্ষোভ। ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির তারকেশ্বরে।

আরও পড়ুন, ভোটের আগের রাতে BJP-র কর্মীর মাকে খুন, কাঠগড়ায় তৃণমূল  

রাজ্যে সকাল থেকেই ৩ জেলায় মোট ৩১ আসনে তৃতীয় দফার ভোটগ্রহন শুরু হয়ে গিয়েছে। আর এর মধ্যেই রয়েছে হুগলির তারকেশ্বর। তাই ভোটের আগেই সেখানে বেশ কয়েকদিন আগেই পৌঁছে যান কেন্দ্রীয়বাহিনীর জওয়ানরা। তাঁদের মধ্যে দুজনের বিরুদ্ধেই  নাবালিকার শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। জানা গিয়েছে, সোমবার রাতে তারকেশ্বরের রামনগরের বাসিন্দা এক নাবালিকা টিউশন সেরে বাড়ি ফিরছিল। অভিযোগ ওঠে, সেই সময় ভোটের ডিউটিরত কেন্দ্রীয়বাহিনীর দুই জওয়ান ওই নাবালিকাকে মুখ চেপে নিয়ে যায়। ভয় পেয়ে চিৎকার শুরু করে ওই নাবালিকা। আর্তনাদের আওয়াজ পেয়েই ছুটে আসেন গ্রামবাসীরা। এরপরেই ওই অভিযুক্ত জওয়ানদের বেধড়ক মারধর করা হয়, চলে জুতোপেটাও। ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা ছড়ায় ওই গ্রামে।

আরও পড়ুন, তৃণমূল নেতার বাড়ি থেকে মিলল EVM, বিক্ষোভ রুখতে লাঠিচার্জ, সেক্টর অফিসারকে সাসপেন্ড কমিশনের 

 

সোমবার রাতেই অভিযুক্ত জওয়ানদের শাস্তির দাবিতে রামনগর থানায় বিক্ষোভ দেখিয়েছে নির্যাতিতার পরিবার ও প্রতিবেশীরা। কিন্তু পুরো বিষয়টি জানালেও গুরুত্ব দেয় পুলিশ বলে অভিযোগ গ্রামবাসীর। এরপর মঙ্গলবার ভোটের দিনের ভোরে পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখার প্রতিশ্রুতি দিলে শান্ত হয় উত্তেজিত জনতা।