এমনটা এর আগে ভারতের কোনও বিধায়ক করে দেখাতে পেরেছেন বলে কেউ মনে করতে পারছেন না। বাঁকুড়ার রানিবাঁধ আসন থেকে এই বছর ফের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন বিদায়ী বিধায়ক জ্যোৎস্না মান্ডি। মনোনয়ন পত্রের সঙ্গে তিনি নির্বাচন কমিশনে যে হলফনামা জমা দিয়েছেন, তাতে দেখা যাচ্ছে গত ৫ বছরের তাঁর সম্পদ বেড়েছে ১৯৮৫.৬৮ শতাংশ!

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের সময় তিনি জানিয়েছিলেন তাঁর সম্পদের পরিমাণ ১,৯৬,৬৩৩ টাকা। আর ২০২১ সালে তাঁর সম্পদ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪১,০১,১৪৪ টাকা। অর্থাৎ ৫ বছরে তাঁর সম্পদ বেড়েছে ৩৯,০৪,৫১১ টাকা!

২৭ মার্চ ভোটগ্রহণ শুরু হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে। প্রথম দফায় ভোট হবে ৩০টি আসনে। প্রথম দফায় যে প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন, তার মধ্যে সম্পদ বৃদ্ধির ক্ষেত্রে জ্যোৎস্না মান্ডির পরেই আছেন, সুদীপ কুমার মুখোপাধ্যায়। ২০১৬ সালে তিনি কংগ্রেসের টিকিটে পুরুলিয়া বিধানসভা আসনে জয়ী হয়েছিলেন। বর্তমানে অবশ্য তিনি দল বদলে বিজেপিতে। ৫ বছরে তাঁর সম্পদ বেড়েছে ২৮৮.৮৬ শতাংশ। ২০১৬ সালে তাঁর ঘোষিত সম্পদ ছিল ১১,৫৭,৯৪৫ টাকা, আর ২০২১ সালে তিনি জানিয়েছেন তাঁর সম্পদের পরিমাণ ৪৫,০২,৭৮২ টাকা।

আরও পড়ুন - ঘুষের বিনিময়ে প্রার্থীপদ, ব্রাত্য ওবিসি নেতা - কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ রায়গঞ্জে

আরও পড়ুন - মমতার প্রকল্প কি সত্যিই মোদীর প্রকল্পের থেকে ভালো, না কি বঞ্চিত বাংলার মানুষ, দেখুন

আরও পড়ুন - তৃণমূলের নির্বাচনী ইশতেহার - প্রশ্নের মুখে 'দিদির অঙ্গীকার', উত্তর খুঁজছে বাংলার জনতা

সম্পদ বৃদ্ধির তালিকায় তিন নম্বরে আছেন, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশিয়ারি আসনের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী তথা বিদায়ী বিধায়ক পরেশ মুর্মু। তাঁর সম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছে ২৪৬.৩৪ শতাংশ। ২০১৬ সালে তার সম্পদের মোট মূল্য ছিল ১১,৫৭,৯২৬ এবং এখন তার সম্পদের মূল্য ৪০,১০,৩২৯ টাকা।

তবে, ৫ বছরে যে সব বিধায়কেরই সম্পদ বেড়েছে, তা নয়। বেশ কয়েকজন বিধায়কেরই সম্পদ হ্রাস পেয়েছে। যেমন, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার জয়নগরের বিদায়ী বিধায়ক বিশ্বনাথ দাস। বিগত বিধানসভা নির্বাচনের আগে তিনি জানিয়েছিলেন তাঁর মোট সম্পদের মূল্য ৪৬,৮৫,৫২৩ টাকা। আর ২০২১ সালে তাঁর জমা দেওয়া হলফনামা অনুযায়ী তাঁর সম্পদ এখন ১৪,৪১,২০০ টাকা। অর্থাৎ ৫ বছরে তাঁর সম্পদ কমেছে ৬৯.২৭ শতাংশ। পুরুলিয়ার মানবাজার আসনের তৃণমূল প্রার্থী তথা বিদায়ী সাংসদ সন্ধ্যারাণী টুডুর সম্পদ হ্রাস পেয়েছে, ৬০.২০ শতাংশ। ২০১৬ থেকে ২০২১-এ তাঁর সম্পদ ৫৩,৯৭,১২৯ টাকা থেকে ২১,৪৮,০৮২ টাকায় নেমে এসেছে।