'দিদিমণির জয় শ্রীরাম শুনলেই শরীর খারাপ হয়ে যাচ্ছে', ফের নাম না করে মুখ্যমন্ত্রীকে খোঁচা দিলীপ ঘোষের। শুক্রবার সাতসকালে  জোকা ডায়মন্ড পার্কের সভা থেকে বরাবরের মতোই আক্রমণ করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

 আরও পড়ুন, IT সেক্টরে ৯০০০ কর্মসংস্থান, লগ্নি ৩ হাজার কোটি টাকা, এবার 'সিলিকন ভ্যালি' বাংলায়


'দিদিমণির জয় শ্রীরাম শুনলে শরীর খারাপ হয়ে যাচ্ছে'

বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন,  'লুটের রাজত্ব বন্ধ করার জন্য আমরা এসেছি। ১২৭ জন কর্মীকে খুন হতে হয়েছে তার জন্য। ২৮ হাজার কেস চলছে আমাদের উপরে। কিন্তু বিজেপি বন্ধ হয়েছে কি, প্রশ্ন তোলেন দিলীপ। কিন্তু এখানে সবাই বিজেপির ভাষণ শুনতে এসেছেন, কারণ তারাই জানেন এই সকল সমস্যার সমাধান ভারতীয় জনতা পার্টি করতে পারবে। নতুন বাংলা গড়বে বিজেপি। যারা আমাদের ঝান্ডা খুলে নিয়ে গেছে, তারাই জয় শ্রীরাম বলতে বলতে বিজেপির সভায় ফিরে আসতে হবে। ঘাড় ধরে বিজেপিতে নিয়ে আসব। দিদিমণির জয় শ্রীরাম শুনলে শরীর খারাপ হয়ে যাচ্ছে', বলে আরও একাধিক অশালিন মন্তব্য করে বিতর্কিত হলেন দিলীপ ঘোষ।

 আরও পড়ুন, মন টানছে মাইথনে, আজই বেরিয়ে পড়ুন, রইল কলকাতার কাছেই ঘুরতে যাওয়ার নতুন ৫ ঠিকানা

 

'দিদিমনির সবুজ সাথীর সাইকেল করে বাজার যেতে হবে'

অপরদিকে, চা পে চর্চা হোক কিংবা ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণ হোক, কমবেশি সব জায়গাতেই তৃণমূলকে আক্রমণ করছেন দিলীপ ঘোষ। কখনও নাম না করে, কখনও আবার সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকে ঠুকছেন দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার চা চক্রের মঞ্চ থেকে রাজ্য সরকারের সমালোচনা করেন দিলীপ ঘোষ। বাম সরকার থেকে বর্তমান রাজ্য সরকারে দুর্নীতি চলছে এমনটাই শোনা গেল তাঁর ভাষণে। 'এখন বড় বড় নেতাদের বড় বড় বাড়ি হয়েছে। নীল সাদা বাড়ি। টাকা কোথা থেকে এল, গাছ লাগিয়েছে। সব ঝাড়া টাকায়। পঞ্চায়েতের টাকা নাহলে সিন্ডিকেটের টাকায়। দিদিমনির নীল সাদা রঙের বাড়ি করে বেঁচে যাবেন নাকি। এই বড় বড় বাড়ি আর গাড়ি ভোগ করতে দেব না মে মাসের পর।  দিদিমনির সবুজ সাথীর সাইকেল করে বাজার যেতে হবে, গাড়ি করে যেতে দেব না। ' এভাবেই হুমকির সুর ছড়িয়ে গোটা ভাষণ দেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

 

আরও পড়ুন, 'ইশকওয়ালা ফুড', শীতে মুড বদলাতে এখনই বেরিয়ে পড়ুন, রইল কলকাতার সেরা রেস্তোরার হদিশ