শাহকে বড় দাদা সম্বোধন করে বিজেপিতে যাত্রা শুরু শুভেন্দুর। প্রায় বহুদিন ধরে তৃণমূল না বিজেপি বাংলার এই জল্পনা কাটিয়ে শেষ অবধি বিজেপিতে যোগদান করেই তোপ দাগলেন শুভেন্দু অধিকারী। শনিবার শুভেন্দুর হাত ধরে ৯ বিধায়ক এবং ১ জন সাংসদ আজ বিজেপিতে যোগ দিলেন। অমিত শাহকে পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করেন শুভেন্দু  অধিকারী।

 

আরও পড়ুন, 'শাহ যদি বিবেকানন্দ মানত, গুজরাটে দাঙ্গা হত না', তৃণমূলের ভরাডুবিতে মেজাজ হারালেন ফিরহাদ


শুভেন্দু অধিকারী জানিয়েছেন, 'অমিত শাহ আমার বড় দাদা। এ সম্পর্ক বহুদিনের।' তিনি আরও বলেন,' আমাকে বিশ্বাসঘাতক বলছে। কারা বলছে, যে দলের জন্য একুশ বছর ধরে নিজেকে ত্যাগ করেছি। তাঁরাই আমাকে বিশ্বাসঘাতক বলছে। তবে বিজেপিতে কোনও মাতব্বরি বা খবরদারি করতেও আসেনি শুভেন্দু , সাফ জানান তিনি। এরপর তিনি বলেন,' আমার যখন কোভিড হয়েছিল দলের কেউ খোঁজ নেয়নি, নিয়েছিল শুধু অমিতজি।' এখানেই শেষ নয় ,' তোলাবাজ ভাইপো হঠাও' বলেও হুঙ্কার ছাড়েন তিনি। অপরদিকে, মুকুল রায়ও বলেছেন আত্মসম্মান থাকলে তৃণমূলে থাকিস না। যাদের জন্য গ্রামে গ্রামে ঘুরেছি, তাঁরা কেউ কেউ খোঁজ নেয়নি।  

আরও পড়ুন, শাহ সফরের দিনে BJPতে যোগদান ফসকে গেল কার কার, বাবুলের বাঁধা পেয়েই কি দলে ফিরতে হল জিতেন্দ্রকে

 
অপরদিকে, জল আরও গড়িয়েছে, যোগদানের পর উঠে আসে মমতা প্রসঙ্গ। বলেন দ্বিতীয় হবে মমতা এবং প্রথম হবে বিজেপি। এবার বাংলায় বিজেপিই সরকার গড়বে।  ডায়মন্ড হারবারে সভায় অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায় আসলে তৃণমূলের সুপ্রিমোকে 'মা 'সম্বোধন করেছিলেন। আর বলেছিলেন 'দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা মানে মায়ের সঙ্গেও বিশ্বাসঘাতকতা।' তারই পাল্টা জবাব শনিবার দিলেন শুভেন্দু।