মুর্শিদাবাদে পিকের নির্দেশে নমিনেশন দাখিল প্রার্থীদের, পিছিয়ে থাকল না গেরুয়া শিবিরও। একদিকে যখন রাজ্যের দ্বিতীয় দফার হাই ভোল্টেজ নন্দীগ্রাম কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ পর্ব চলছে ঠিক তখনই রাজ্যের অপর প্রান্তে তৃণমূলের 'ভরসা' সপ্তম দফার ভোটের মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার বৃহস্পতিবার হিড়িক দেখা গেল ভারত বাংলা সীমান্তের মুর্শিদাবাদ জেলার উত্তর থেকে দক্ষিণে।

আরও পড়ুন, '২ মে কাছে আসতেই মাথা খারাপ হয়ে যাচ্ছে দিদির ', উলুবেড়িয়ায় মমতাকে ফের নিশানা মোদীর 

 

 

জঙ্গীপুর মহকুমা শাসকের কার্যালয় থেকে শুরু করে, কান্দি ,বহরমপুর সহ অন্যান্য মহকুমা শাসকের কার্যালয়ে হাজির হয়ে তৃনমূলের নজরকাড়া প্রার্থী জেলার সদর শহর বহরমপুর এর নাড়ুগোপাল মুখার্জি থেকে শুরু করে, বেলডাঙ্গার হাসানুজ্জামান শেখ, হরিহারপাড়া নিয়ামত শেখ, রেজিনগরের রবিউল আলম চৌধুরী সুতির ইমানি বিশ্বাস, মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রের মোহাম্মদ আলী। এমনকি এই দিনেই খোদ গেরুয়া শিবিরের হেভিওয়েট প্রার্থী  মুর্শিদাবাদের বিজেপির গৌরী শংকর ঘোষ পর্যন্ত। সেই সঙ্গে  অন্য  কয়েকজন নির্দল প্রার্থীও তাদের মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন।

আরও পড়ুন, '১০ বছর কাজ করলে এই দিন দেখতে হতো না', মমতার ভাগ্য নির্ধারণের দিনেই জয়নগরে তোপ মোদীর 


শান্তি  শৃঙ্খলা মধ্য দিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা হয়েছে বলে জানিয়েছেন লালবাগ মহকুমা শাসক সুদীপ ঘোষ। তৃণমূল সুপ্রিমোর ভাগ্য পরীক্ষার দিনেই মুর্শিদাবাদে ঘাসফুলের প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়া যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। বিশেষ সূত্র মারফত জানা যায়, তৃণমূলের রাজনৈতিক স্ট্র্যাটেজিস্ট পিকের নির্দেশেই এই যাবতীয় কর্মকাণ্ড। ঢাক ঢোল  আড়ম্বরের পাশাপাশি দলের নেতা কর্মীদের সঙ্গে মিছিলে পা মিলেয়ে  তৃণমূল প্রার্থীরা হাজির হন  মহকুমা শাসকের কার্যালয়ে । তাদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মুর্শিদাবাদ লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ তথা জেলা তৃণমূল কংগ্রেস  সভাপতি আবু তাহের খান এবং জঙ্গিপুরের সাংসাদ খলিলুর রহমানও। 

আরও পড়ুন, ভোটের দিনেও মমতাকে দেখে জয় শ্রীরাম স্লোগান নন্দীগ্রামে, তৃণমূল নেত্রী বললেন ওরা বহিরাগত 

 

 


এদিন প্রার্থীদের নিয়ে মিছিলে মা মাটি মানুষের স্লোগান তুলতে দেখা যায় স্বয়ং আবু তাহের কে । ওই মিছিল অবশ্য নির্বাচনী বিধি মেনে মহকুমা শাসকের কার্যালয়ের আগেই শেষ করা হয় । বর্তমানে মনোনয়ন পত্র জমা করা একটি জটিল প্রক্রিয়া হয়ে্  উঠেছে ।একাধিক কাগজ পত্র তো বটেই তথ্যও জমা করতে  হয় ।তাই প্রথম দিনেই ওই জটিল কাজ শেষ করে লড়াইয়ের ময়দানে মনোনিবেশ করতে চান লালগোলা বিধান সভার তৃণমূল দলের প্রার্থী মহম্মদ আলি । জয়ের ব্যাপারে নিশ্চিত আলী সাহেব  বলেন , ' তৃণমূল দলে ব্যাক্তি গত ভাবে কেউ প্রার্থী নন । তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও জোড়া ফুল প্রতিকের জয় সময়ের অপেক্ষা মাত্র।'

আরও পড়ুন, দ্বিতীয় দফায় নজরে নন্দীগ্রাম, ভোট দিতে হেঁটে এলেন 'ভোটার লিস্টে মৃত' স্বামী-স্ত্রী 

 

 

 

 এদিকে স্পষ্ট ভাবে শাওনী জানিয়ে দিয়েছেন শুভস্য শিঘ্রম । তবে নবগ্রাম বিধান সভার তৃণমূল প্রার্থী কানাই চন্দ্র মন্ডল বলেন ,'মা মাটি মানুষের সরকারের উন্নয়ন নিয়ে মানুষের কাছে যাব ,তাতেই তৃতীয় বারের জন্য জয় সুনিশ্চিত হবে ।' এদিন তৃণমূলের পাশাপাশি এস ইউ সি আইয়ের  চার প্রার্থী , এস ডি পি আইয়ের এক জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা করেন । পাশাপাশি এদিন মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রে গেরুয়া শিবিরের হয়ে মনোনয়ন জমা দেওয়া মুর্শিদাবাদের জেলা সভাপতি গৌরীশঙ্কর ঘোষ বলেন,"তৃণমূলের হার্ড রাজ্যে অনিশ্চিত আজকে দ্বিতীয় দিনের ভোটগ্রহণে মুখ্যমন্ত্রী যে হাঁটছেন তা ইতিমধ্যেই তিনিও বুঝে গিয়েছেন। তাই যতই তৃণমূল কর্মীরা পিকের টিমের পরামর্শ মেনে নমিনেশন জমা দেন না কেন আর তাঁরা রাজ্যের ক্ষমতায় ফিরছে না।'