ভোটের আগে তৃণমূল-সংযুক্ত মোর্চার সংঘর্ষে রক্তাক্ত বারুইপুর। তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলার অভিযোগ ওঠে সংযুক্ত মোর্চা বিরুদ্ধে। সংঘর্ষে আহত ৫ জন এবং এদের মধ্য়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে তৃণমূল কর্মী রহুল আমিন মিদ্দের। শাসকদলের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ সিপিএম এবং আইএসএফের।  এখনও অবধি এই ঘটনা ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন, 'শিশুরাও আপনার খেলা বুঝে গেছে দিদি', কৃষি ইস্যুতে মমতাকে নিশানা মোদীর 

 

 


বুধবার রাতে বারুইপুরে বেলেগাছিতে তৃণমূল-সংযুক্ত মোর্চার সংঘর্ষ বাধে। তৃণমূলের দাবি, বারুইপুর পূর্ব বিধানসবা কেন্দ্রের প্রাথী বিভাস সর্দারের সমর্থেনে প্রচারে বেরিয়েছিলেন ঘাসফুল শিবিরের কর্মী সমর্থকরা। তখনই তাঁদের উপর আইএসএফ কর্মীরা মিলে হামলা চালায় । ঘটনায় গুরুতর আহত হন ৫জন। দের মধ্য়ে একজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। মৃত্যু হয়েছে তৃণমূল কর্মী রহুল আমিন মিদ্দের। 

আরও পড়ুন, আজ রাজ্যে শাহ-রাজনাথ-যোগী, ওদিকে নির্বাচনী প্রচারের ঝড় তুলতে জেলায় মমতা 

 

 

অপরদিকে পাল্টা অভিযোগ এনেছে সংযুক্ত মোর্চা। সংযুক্ত মোর্চা নেতা বলেছেন, বৃহস্পতিবার তাঁদের প্রচারে বেরোনোর কথা। সে বিষয়ে বৈঠক করতেই এক কর্মীর বাড়িতে জড়ো হয়েছিলেন কয়েকজন কর্মী-সমর্থক। সেসময় তৃণমূল কর্মীরা তাঁদের উপর চড়াও হয়। তাঁদের বেধড়ক মারধর করে। তাঁদের অনেকেই হাসপাতলে ভর্তি। ৩ জন নিখোজ। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্তও তাঁদের কোনও খোঁজ মেলেনি।

আরও পড়ুন, 'কবিগুরুর এই মাটিতে কেউ বহিরাগত নন দিদি', মোদীর যুক্তি শুনে বাঁকুড়ায় কী বার্তা মমতার