বিজেপিতে যোগদান করেই দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। মেদিনীপুরের সভা থেকে সবেচেয়ে আক্রমণ করেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায় ও মমতাকে। এরপর, এখনও যেসব জায়গায় শুভেন্দু সভা করেছেন, সেই প্রত্যেকটি জায়গা থেকেই শুভেন্দুর আক্রমণের নিশানায় অভিষেক। মঙ্গলবার বারুইপুরের সভা থেকেও অভিষেককে 'ভাইপো' বলে কটাক্ষ করেন শুভেন্দু। এর জবাব দিলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়। 

আরও পড়ুন-গেরুয়া শিবিরে গুরুত্ব বাড়ছে শুভেন্দু-রাজীবের, তাঁদের দিল্লিতে জরুরি তলব করলেন শাহ

''বাংলার রাজনীতিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের গুরুত্ব বাড়ছে। তার থেকেই বিজেপি নেতারা সবসময় অভিষেককে নিশানা করেন''। বিরোধীদের আক্রমণের জবাবে এমনটাই দাবি করলেন পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়। তিনি বলেন, এ''খান থেকে ক্ষমতা ভোগ করে অন্য জায়গায় ক্ষমতা লাভের আশায় গিয়েছেন। তাঁরা রাজ্যের উন্নয়নের কথা বললেন না। তাঁদের মূল এজেন্ডা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়। এর থেকে এটাই প্রমাণিত অভিষেক এখন রাজ্য রাজনীতির প্রধান শক্তি। তাই এত আক্রমণ করা হচ্ছে''।

আরও পড়ুন-'ভোটের আগে বাগান খোলার আশ্বাস দেয়, পরে পালিয়ে যায়', চা শিল্প নিয়ে বিজেপিকে তোপ মমতার

মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলনে নাম না করেই শুভেন্দুকেই একথা বলেন পার্থ। শুভেন্দু অধিকারী বারবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে আক্রমণ করেছেন। 'তোলাবাজ ভাইপো' বলেও একাধিকবার কটাক্ষ করেছেন তিনি। এর জন্য শুভেন্দুকে আইনি নোটিসও পাঠিয়েছেন অভিষেক। পাল্টা জবাব দিয়েছেন শুভেন্দুও। তাঁকে তোলাবাদ বলায় নারদা কাণ্ডের প্রসঙ্গ তুলে কাকে টাকা নিতে দেখা গিয়েছে? সে প্রশ্নও বারবার তুলেছেন অভিষেক। তাঁকে আক্রমণের রাজনৈতিক গুরুত্ব কি? এদিন  বুঝিয়ে দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়।