৮৫ শতাংশ ভোট পড়লেই জিতছি, নন্দীগ্রাম ঘুরে চূড়ান্ত আত্মবিশ্বাসের সহিত বললেন বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী। এদিন নন্দীগ্রামের নন্দনায়েকবাড়ের ৭৬ নং বুথে সাতসকালেই ভোট সেরেছেন শুভেন্দু অধিকারী।

আরও পড়ুন, দ্বিতীয় দফায় নজরে নন্দীগ্রাম, ভোট দিতে হেঁটে এলেন 'ভোটার লিস্টে মৃত' স্বামী-স্ত্রী 

এদিন শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন, ৮৫ শতাংশ যদি ভোট পড়ে তাহলে বুঝতে হবে যে পরিবর্তন হচ্ছে। আর যেভাবে ভোট পড়ছে, তাতে ভোটদানের হার ৮৫ শতাংশ ছুঁয়ে ফেলবে বলেই আমি মনে করি।  যদি কম ভোট পড়ত, ভোটদানের হার ৬০ থেকে ৬৫ শতাংশের মধ্যে থাকত, তাহলে চিন্তা করতে হত। বিজেপির অবশ্য দাবি, নন্দীগ্রামে সামগ্রিকভাবে শান্তিতেই ভোট হচ্ছে। শুভেন্দু আরও বলেছেন, শান্তিপূর্ণ ভোট হচ্ছে। কেন্দ্রীয় বাহিনী সব শায়েস্তা করে দিয়েছে। দুই এক জায়গায় ঝামেলা পাকাতে চেয়েছিল, আমি আগেই খবর পেয়ে গিয়েছি। ওদের মধ্যে এখনও আমাদের লোক আছে।'

আরও পড়ুন, 'খুনের রাজনীতি করে ওরা', তৃণমূলকে তীব্র আক্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ 


বুধবার রাজ্যে দ্বিতীয় দফার ভোট।  ৪ জেলার ৩০ আসনে কড়া নিরাপত্তায় ভোটগ্রহন। এদিন গোসাবা, পাথরপ্রতিমা, কাকদ্বীপ,সাগ, তমলুক, পাশকুড়া পূর্ব, পাসকুড়া পশ্চিম, ময়না, নন্দকুমার, মহিষাদল, হলদিয়া, নন্দীগ্রাম, চন্ডীপুর, খড়গপুর সদর, নারায়নগড়, সবং, পিংলা, ডেবরা, দাসপুর, ঘাটাল, চন্দ্রকোনা, কেশপুর, তালডাঙরা, বাঁকুড়া, বড়োজোড়া, ওন্দা, বিষ্ণুপুর, কোতলপুর, ইন্দাস, সোনমুখীতে-এই কেন্দ্র গুলিতে ভোট হবে বুধবার। দ্বিতীয় দফার ভোটের মধ্য়ে সবচেয়ে হেভিওয়েট কেন্দ্র নন্দীগ্রাম। মূলত তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি যোগ দেওয়ার পর হেভিওয়েট নন্দীগ্রামের প্রার্থী হিসেবে এবার দাড়িয়েছেন শুভেন্দু। আর সেই নন্দীগ্রামেই প্রার্থী আবার তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। স্বাভাবিকভাবেই একুশের ভোটযুদ্ধ এবার অন্যবারের থেকে পুরোটাই আলাদা।