বুধবারের পরিবর্তন যাত্রার কর্মসূচি প্রকাশ করল রাজ্যবিজেপি।  মোট ৯ টি জায়গায় গুরুত্বপূর্ণ সভার কার্যক্রম টুইট করে জানিয়েছে গেরুয়া শিবির।  পরিবর্তন যাত্রার এই কর্মসূচিতে রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নের্তৃত্ব সহ থাকছেন শুভেন্দু অধিকারী, রাজীব বন্দ্য়োপাধ্য়ায় এবং মাফুজা খাতুন।

আরও পড়ুন, মমতার সঙ্গে দীর্ঘ ২২ মিনিটের সাক্ষাত, পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম, তৃণমূলে ফিরছেন কি BJP-র ২ বিধায়ক  

 

বিজেপির কর্মসূচিতে জানানো হয়েছে, নলহাটি বিধাসভার জন্য সকাল ১০ টায় নলহাটি ও  ১১ টা ২০ নাগাদ বৈধরা, ময়ূরেশ্বর বিধানসভার জন্য ২ টা ৩০ মিনিটে গাঙপুরে এবং ৩ টে ৩০ মিনিটে মল্লালপুর, ৫টা ৪৫ মিনিটে কটাসুরে, সাইথিয়া বিধানসবার জন্য সন্ধে ৬ টা ৪৫ মিনিটে সাঁইথিয়া। পাশাপাশি  বীনপুর বিধানসভার জন্য সকাল ১০ টা ৩০ মিনিটে গিধনীতে,দুপুর ৩ টা ২০ মিনিটে জঙ্গীপুর বিধানসভার জন্য অজগরপাড়া, এবং দুপুর ৩ টা ৩০ মিনিটে গোপীবল্লভপুর বিধানসবার জন্য রোহিনীতে বিরাট জনসভার আয়োজন করেছে বিজেপি। প্রত্য়েক জাগায়াতেই থাকছেন রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নের্তৃত্ব সহ  রাজীব-শুভেন্দুরাও।

আরও পড়ুন, স্বাস্থ্যসাথীতে ICU-CAPD সহ একাধিক চিকিৎসায় বরাদ্দ ২০০ কোটি, হয়রানি কমবে এবার বেসরকারিতে 


উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বীরভূম সফর করে  পরিবর্তন যাত্রার সূচনা করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। মা-মাটি-মানুষের সরকারকে নিশানা করে জেপি নাড্ডা বলেন, 'তৃণমূলের নেতা নেত্রীদের ভাষা শুনে আমার দুঃখ হচ্ছে। এরা মানুষকে সম্মান দিতে জানে না। অনেক হয়েছে মমতা। এবার পরিবর্তন চাইছে জনতা। প্রধানমন্ত্রী মোদীর হাত ধরে বাংলা বদলাবে। স্বচ্ছ প্রকল্প নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বাংলায় আসেন। ৮৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ইষ্ট ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ চলছে।' তিনি আরও বলেন, 'বাংলায় সব কিছুতেই রাজনীতি। আমফানের টাকা চুরি করেছে সরকার। করোনার সময় সরকার চাল, ডাল পাঠিয়েছিল সরকার। কিন্তু সেই চাল ডাল মানুষের কাছে পৌঁছয়নি। ওই চাল ডাল তৃণমূল নেতাদের বাড়িতে পৌঁছে যায়।' 

আরও দেখুন, Election Live Update-আজ রায়গঞ্জে মমতার সভা, ওদিকে 'পরিবর্তন যাত্রা' নিয়ে প্রচারে BJP-র শীর্ষ নের্তৃত 


প্রসঙ্গত, বিজেপি সূত্রে খবর, ১৩ ফেব্রুয়ারি গোটা জেলায় ৩২৮ কিমি পরিবর্তন যাত্রা করা হবে। সেখানেই নের্তৃত্ব দেবেন বিজেপির শীর্ষ নের্তৃত্ব। নানুরে সভা করবেন যোগী আদিত্যনাথ। ভোটের আগে অনুব্রত গড়ে আসবেন স্মৃতি ইরানি এবং রাজনাথ সিং। জানা গিয়েছে, বর্ধমানে জনসভা করতে পারেন বিজেপির এই কেন্দ্রীয় নের্তৃত্ব। তবে সঙ্গে থাকবেন বরাবরের মতোই রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নের্তৃত্ব হিসেবে দিলীপ ঘোষ সহ শুভেন্দুরাও।