করোনা আবহে কাজ হারিয়েছেন সাধারণ মানুষ। এই পরিস্থিতির মাঝেও চাকরি দেওয়ার নামে লক্ষাধিক টাকা প্রতারণার অভিযোগ উঠল উত্তর ২৪ পরগনার বাগদায়। অভিযুক্ত আবার স্কুলের এক প্রধান শিক্ষক। উত্তর ২৪ পরগনার হালিশহরের বাসিন্দা শুভেন্দু সরকার নামে ওই শিক্ষককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ পুলিশ।

আরও পড়ুন-প্রেমিকা নাবালিকা হওয়ায় বিয়ে করতে রাজি নয় প্রেমিক, হিঙ্গলগঞ্জে প্রেমিকের বাড়িতে ধর্নায় বসল নাবালিকা

জানাগেছে, বনগাঁর বাসিন্দা স্বাপন কান্তি বিশ্বাস, পরিতোষ মণ্ডল ও গৌতম সাধুর সঙ্গে ২০১৬ সালে পরিচয় হয়েছিল শুভেন্দু সরকারের। তাঁদের শিক্ষক শুভেন্দু জানায়, উপর মহলে তার ভাল যোগাযোগ রয়েছে। টাকা দিলে সে চাকরি পাইয়ে দিতে পারবেন। পাশাপাশি তার দাবি ছিল, চাকরি না হলে টাকা ফেরত। শিক্ষকের কথায় বিশ্বাস করে ,সহজ পথে চাকরি পাওয়ার লোভে শুভেন্দু সরকারকে ৯ লক্ষ টাকা দেয় তারা। কিন্তু সময় যত গড়িয়েছে তাঁদের কোনও চাকরি হয়নি।

আরও পড়ুন-স্ত্রীর পরকীয়া হাতেনাতে ধরে ফেললেন স্বামী, বিপদ বুঝে ধারালো অস্ত্রের কোপ প্রেমিকের

অভিযোগ, চাকরি না হওয়ায় শিক্ষক শুভেন্দুর কাছে টাকা চাইতে গেলে অভিযোগ দেওয়া হয় তাঁদের। চাপের মুখে পড়ে শেষ পর্যন্ত কিছু টাকা ফেরত দেয়। বাকি থাকে ৫ লক্ষ ৬৮ হাজার টাকা। এই অবস্থায় চাকরি অন্যত্র স্থানান্তরের চেষ্টা করছিল ওই প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক। 

আরও পড়ুন-ছুটে এসে শুড়ে তুলে আছাড়, হাতির হামলায় গুরুতর জখম বৃদ্ধ

এরপরই শিক্ষক শুভেন্দু সরকারের বিরুদ্ধে বাগদা থানায় প্রতারণার অভিযোগ করা হয়। পুলিশ শুভেন্দু সরকারকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে।