দ্বৈপায়ন লালা, মালদহ:  ভাইরালের নেশা সর্বনাশা! কখন যে ট্রেন চলেছে, খেয়ালই করেনি সে। রেললাইনের ধারে দাঁড়িয়ে  ভিডিও তুলতে গিয়ে বেঘোরে প্রাণ গেল এক স্কুলছাত্রের। বরাতজোরে রক্ষা পেয়েছে তার বন্ধু। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের মধুঘাট এলাকায়।  

আরও পড়ুন: এলাকা দখলের নিয়ে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল, ভর সন্ধ্যায় গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী

মৃতের নাম মনোজ মণ্ডল। বাড়ি, মালদহের কাজিগ্রাম পঞ্চায়েতের শ্রীরামপুর গ্রামে। স্থানীয় একটি স্কুলে নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল সে। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, ইংরেজবাজারের মধুঘাট এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে গিয়েছিল মনোজ। সেখানে ভোলা রায় নামে স্কুলের এক সহপাঠীর সঙ্গে দেখা হয় যায় তার। দিনের বেশিরভাগ সময় একসঙ্গেই থাকত দুই বন্ধু। বাড়ির কাউকে কিছু না জানিয়ে ভোলাকে সঙ্গে নিয়ে রেললাইনের ধারে চলে যায় মনোজ। এরপর শুরু হয় ভিডিও শুট। আর তাতেই ঘটল বিপত্তি।

আরও পড়ুন: স্বাধীনতার সাত দশক পরেও ঘুচল না বঞ্চনা, রেশন কার্ড নেই রাজ্যের আদিবাসীদের

জানা গিয়েছে, ভোলা ও মনোজ যখন রেললাইনের ধারে দাঁড়িয়ে ভিডিও তুলছিল, তখন উল্টো দিক চলে আসে একটি মালগাড়ি। ভিডিও নিয়ে এতটাই ব্যস্ত ছিল, যে ট্রেনের দিকে আর নজরই পড়েনি। এরপ আচমকাই সেই মালগাড়ির ধাক্কায় ছিটকে পড়ে মনোজ। এরপর ভোলার চিৎকার শুনে ছুটে আসেন আশেপাশের লোকেরা। রক্তাক্ত অবস্থায় স্কুল ছাত্র মনোজকে নিয়ে যাওয়া হয় মালদহ মেডিক্য়াল কলেজ ও হাসপাতালে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। চিকিৎসকরা ওই কিশোরকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। এলাকায় শোকের ছায়া।