করোনার ভয় দূরে সরিয়ে স্কুল খুললেও, তার প্রকোপ এবার স্কুলের সরস্বতী পুজোতেও সরাসরি পড়েছে। স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের এবার  সরস্বতী ঠাকুরের থেকে দূরে রাখা হয়েছে। স্কুল খোলা থাকলেও উত্তর দিনাজপুর জেলায় স্কুলগুলিতে সরস্বতী পুজোর স্বাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ছাত্রছাত্রীরা। তারা এবারে পুজোতে অংশ নিতে পারছে না। ছাত্র-ছাত্রীদের অনুপস্থিতিতে শিক্ষক শিক্ষিকাদের সরস্বতী পুজো সারতে হল। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ভয়ে স্কুলগুলিতে ছাত্রছাত্রীদের উপস্থিতির হার কার্যত শূন্য। 

আরও পড়ুন- ভেঙে ফেলো বাধা বিঘ্ন, হতাশা করো ছিহ্ন, বসন্ত পঞ্চমী উপলক্ষ্যে মুক্তি পেল মুখ্যমন্ত্রীর লেখা গান 

প্রায় এক বছর ধরে করোনার জন্য রাজ্যের সমস্ত স্কুল কলেজ বন্ধ ছিল। কিন্তু কয়েক দিন আগে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাস করা হয়েছে। সরকারি নিয়ম-বিধি মেনেই ক্লাস শুরু হয়েছে।  রাজ্য সরকারের নির্দেশ স্কুলগুলিতে সরস্বতী পুজো করা হবে। সরকারি নির্দেশিকা মেনেই পুজোর আয়োজন করা হয়েছে। স্কুলগুলিতে স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থা রাখতে হয়েছে৷  রায়গঞ্জ শহরের পার্বতী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অরুপ জানিয়েছেন, 'প্রতি বছরই সরস্বতী পুজোর আয়োজন করা হয়। কিন্তু এবারের পরিস্থিতি একটু অন্যরকম, তাই এবার স্কুলের পুজো একটু অন্যভাবে করা হয়েছে। এবারের সরস্বতী পুজো নিয়ে কিছু নির্দেশিকা এসেছে রাজ্য শিক্ষা দপ্তর পক্ষ থেকে। আমরা সেই নির্দেশ মেনেই স্কুলে পুজোর আয়োজন করা করেছি।' 

আরও পড়ুন- শেষ বেলায় কমল প্রতিমার দাম, বিদ্যার দেবীর আরাধনার প্রস্তুতি রাজ্য জুড়ে .

স্কুলের প্রধান শিক্ষক আরও জানিয়েছেন, পুজোর দায়িত্বে এবার কোনও ছাত্রছাত্রীদের উপর দেওয়া হয়নি। শিক্ষক শিক্ষিকারাই এবার দায়িত্ব নিয়েছে। স্কুলে সব রখম ব্যবস্থা করা হয়েছে কোরোনা মোকাবিলার জন্য বলে জানান প্রধান শিক্ষক অরুপবাবু। স্কুলের এক ছাত্র জানিয়েছে,  প্রতিবার এইদিনে আমরা সকাল থেকেই স্কুলে এসে আনন্দ করি।এবার তা পারছি না।তবে দূর থেকে হলেও স্কুলের পূজো দেখবো  বলে এসেছি।