বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গা পুজোয় থাবা বসিয়েছে করোনাভাইরাস। পুজোর শুরু থেকে করোনা সুরক্ষায় যাবতীয় ব্যবস্থা করেছেন পুজো উদ্যোক্তারা। এই অবস্থায় মহাষ্টমীতে বাঁকুড়ার জয়রামবাটি কুমারী পুজোতেও গ্রহণ করা হল করোনা সুরক্ষা বিধি। কোভিড টেস্ট করার পরই কুমারী রূপে পুজিতা হলেন দ্বীপান্বিতা ভট্টাচার্য।

আরও পড়ুন-যোদ্ধার সাজে সজ্জিতা কৃষ্ণনগর রাজবাড়ির দুর্গা প্রতিমা, করোনা আবহে দর্শক শূন্য মণ্ডপ

কুমারী রূপে পূজিতা দ্বীপান্বিতার বয়স পাঁচ বছর তিন মাস। পুজো শুরুর আগে থেকেই করোনা সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে দ্বীপান্বিতার কোভিড টেস্ট করা হয়। তারপর থেকেই তাঁকে জয়রামবাটি মার্তৃ মন্দিরে নিয়ে আসেন পরিবারের সদস্যরা। দ্বীপান্বিতার সঙ্গে ছিলেন তাঁর পরিবারও। 

আরও পড়ুন-পুজোর মরসুমে চেনা ছবি উধাও মুর্শিদাবাদে, নেই পর্যটক সমাগম-শুনশান নবাব নগরী

মহাষ্টমীর দিন সকাল ৯টা শোভাযাত্রার মাধ্য়মে কুমারীকে নিয়ে আসা হয় নাট মন্দিরে। সেখানে মন্ত্র উচ্চারণের মাধ্যমে শুরু হয় কুমারী পুজো। শনিবার অষ্টমীর পুজো শুরু হয় ভোচ পাঁচটা ষোল মিনিটে। সন্ধি পুজো শুরু হয় সকাল ৬টা ৩৫ মিনিটে। ঠিক সকাল ৯টায় শুরু হয় কুমারী পুজো। প্রতিবছর মহা সমারোহে জয়রামবাটিতে পালিত হল দুর্গা পুজো। কিন্তু এবছর করোনা পরিস্থিতির জেরে মণ্ডপ ছাড়াই পুজো হচ্ছে নাট মন্দিরে।