ফের রাজনৈতিক অশান্তির জের। উত্তপ্ত হয়ে উঠল কোচবিহারের দিনহাটা এলাকা। দিনহাটার ভেটাগুড়ি এলাকায় দফায় দফায় তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গিয়েছে। সূত্রের খবর শনিবার রাত থেকেই দুই দলের মধ্যে দফায় দফায় গোষ্ঠী সংঘর্ষের খবর পাওয়া গিয়েছে। তৃণমূল বিজেপির সংঘর্ষের পর এবার পুলিশের গাড়িকে লক্ষ্য করে হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে খবর। জানা গিয়েছে, গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে দুস্কৃতিরা। 

 প্রসঙ্গত, কোচবিহার লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কোচবিহার। সেখানকার তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে বোমাবাজি, সংঘর্ষের এবং গুলি চালানোর ঘটনা প্রায়শই প্রকাশ্যে আসে। রাজনৈতিক সংঘর্ষের মধ্যে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে বারবার প্রশ্ন উঠেছে। আর এবার ফের এলাকা দখলকে কেন্দ্র করে ভেটাগুড়তে তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায় বলে খবর। এর জেরে দুপক্ষের বেশ কয়েকটি বাড়িও ভাঙচুড় করা হয় বলে অভিযোগ। এলাকায় বোমাবাজিও হয়েছে বলে খবর।

এই ঘটনার পর থেকেই এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছিল পুলিশ। জারি রয়েছে পুলিশি টহলদারি। শনিবার রাতে টহল দেওয়ার সময়ে পুলিশ ভ্যানটি যখন ভেটাগুড়ি চৌপথি তে পৌঁছায় সেই সময় বেশ কিছু দুষ্কৃতী আগের থেকেই সেই এলাকায় জমায়েত হয়েছিল। পুলিশের ভ্যানটি সেখানে দাঁড়াতেই দুষ্কৃতীরা পুলিশের ভ্যানটিকে লক্ষ করে প্রথমে বোমা ছোঁড়ে এবং পরে গুলি চালাতে শুরু করে বলে জানা গিয়েছে। 

সদ্য হারিয়েছেন ছেলেকে, বিধবা পুত্রবধুর ফের বিয়ে দিয়ে মানবিকতার নজির গড়লেন শাশুড়ি

দিনভর উত্তপ্ত রইল উপত্যকা, পুঞ্চের তিন সেক্টরে ভারী গোলা বর্ষণ পাক সেনার

দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া গুলি পুলিশ ভ্যানের সামনের কাঁচে গিয়ে লাগে। এরপর দিনহাটা থানায় খবর পৌঁছাতেই দিনহাটা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে উপস্থিত হয় ঘটনাস্থলে। তবে ততক্ষণে সেখান থেকে চম্পট দিয়েছে দুষ্কৃতীরা। তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষের পাশাপাশি পুলিশের উপর হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে একথা স্পষ্ট যে, কোচবিহারে অব্যাহত রয়েছে দুষ্কৃতী রাজ। তবে পুলিশের গাড়িতে দুষ্কৃতীদের গুলি চালানোর ঘটনার পরেও পুলিশের তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।