বিধানসভা ভোটের আগে রাজনৈতিক হিংসায় উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে রাজ্যের চারিদিকে। শনিবার বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নিল পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোল এলাকায়। দফায় দফায় বোমাবাজি, গুলি চালানোর অভিযোগ। দুই পক্ষের সংঘর্ষে জখম হয়েছেন কমপক্ষে চারজন। গুরুতর অবস্থায় তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন-দক্ষিণ ছাড়িয়ে এবার উত্তরে, রাজপথে শুভেন্দুর সমর্থনে বড়বড় হোর্ডিং

তৃণমূলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস, দুর্নীতির অভিযোগ তুলে রাজ্য জুড়ে 'আর নয় অন্যায়' কর্মসূচি নিয়েছে বিজেপি। শনিবারও এই কর্মসূচির সমর্থনে আসানসোলের বারাবানিতে মিছিল করছিল বিজেপি। এলাকার জামগ্রাম থেকে মিছিল শুরু হয়। অভিযোগ, মিছিল শুরুর আগেই একদল দুষ্কৃতী মিছিলের উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। বেপরোয়াভাবে বোমাবাজি ও কয়েক রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে বলে অভিযোগ। বিজেপির দাবি, তৃণমূলের লোকজন কোনও ঝান্ডা ব্যবহার না করেই মিছিলের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। মিছিল শুরু হতেই বোমা-গুলি নিয়ে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা ঝাঁপিয়ে পড়ে বলে অভিযোগ। দুষ্কৃতীদের হামলায় বিজেপির চারজনকর্মী গুরুতর জখম হন।

আরওস পড়ুন-তৃণমূলের 'দুয়ারে-দুয়ারে' কর্মসূচির পালটা 'গৃহযাত্রা' বিজেপির, নয়া কর্মসূচির সূচনায় কৈলাস

অন্যদিকে, বিজেপির মিছিলের উপর হামলার অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। বারাবনির তৃণমূল বিধায়ক বিধান উপাধ্যায়ের অভিযোগ, বিজেপি নিজেদের মধ্যে অশান্তি করে এখন তৃণমূলের উপর দায় চাপাচ্ছে। জামগ্রামে তৃণমূলের দুয়ারে-দুয়ারে কর্মসূচি চলছে। সেই কর্মসূচিতে যোগ দিতে বহু মানুষ গেলে বিজেপির তাঁদের উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। দুই রাজনৈতিক দলের সংঘর্ষে পরিস্থিতি আয়ত্তের বাইরে চলে যায়। এক ব্যক্তির মোটরবাইকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।