মুকুল রায়ের সঙ্গে দিলীপ ঘোষের 'সংঘাতে' তীব্র অস্বস্তি বিজেপি-তে। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে হস্তক্ষেপ করতে হল দলের সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বুধবারই দিল্লিতে মুকুল এবং দিলীপকে নিয়ে বৈঠক ডেকেছেন অমিত শাহ। 

ঘটনার সূত্রপাত একচি বাংলা সংবাদমাধ্যমে দিলীপ ঘোষের করা একটি মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে। ওই সংবাদমাধ্যমের দাবি অনুযায়ী, বিজেপি রাজ্য় সভাপতি নাকি মুকুল রায়ের থেকে কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামাণিককে বড় নেতা বলে দাবি করেন। মুকুলের রাজনৈতিক গুরুত্ব এবং প্রভাব নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেন তিনি। 

এই খবর প্রকাশ্য আসতেই তীব্র বিতর্ক শুরু হয়। দিলীপের নাম না করে মুকুল পাল্টা সংবাদমাধ্যমে বলেন, 'কে বড় নেতা তা মানুষই বিচার করবেন।'

রাজ্য বিজেপি-র দুই শীর্ষ নেতার এই প্রকাশ্য দ্বন্দ্বের খবর দিল্লিতে সর্বভারতীয় নেতৃত্বের কানেও পৌঁছে যায়। এর পরেই জানা যায়, বুধবার সকালে মুকুল রায় এবং দিলীপ ঘোষকে নিয়ে বৈঠকে বসবেন দলের সভাপতি অমিত শাহ। যদিও, সরকারি ভাবে বলা হচ্ছে, ২০২১-এর বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে 'মিশন বাংলা' নিয়ে রণকৌশল ঠিক করাই এই বৈঠকের উদ্দেশ্য।

আরও পড়ুন- পরকীয়া বাংলার সংস্কৃতি নয়, শোভন- বৈশাখীকে খোঁচা বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের

আরও পড়ুুন- মান ভাঙালেন মুকুল, বিজেপি-তেই থাকছেন শোভন- বৈশাখী

যে মন্তব্য নিয়ে বিতর্ক, তা সরাসরি অস্বীকার করেননি বিজেপি রাজ্য সভাপতি।এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'অনেকের সঙ্গে গল্প হয়। কেউ খবর করে দিলে আলাদা। নিশীথ প্রামাণিক একজন সাংসদ, তার অবশ্যই গুরুত্ব আছে। অর্জুন সিংহের উপরে এত বড় আক্রমণ হল, তবুও তিনি টিকে আছেন। তারও গুরুত্ব আছে বলেই টিকে আছেন। সবারই গুরুত্ব আছে, ওভাবে কারও সঙ্গে কারও তুলনা হয় না।'