দ্বৈপায়ন লালা, মালদহ: বিডিও নিজেই করোনায় আক্রান্ত। সংক্রমণ ঠেকাতে এবার রাতারাতি বিডিও অফিসও বন্ধ করে দিল প্রশাসন। নির্দেশিকা জারি করা হয়নি কেন? ক্ষুদ্ধ সাধারণ মানুষ। বিভিন্ন প্রয়োজনে বিডিও অফিসে সমস্যায় পড়তে হয় অনেককেই। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহে।

আরও পড়ুন: করোনায় উদ্বেগ বাড়ছে মালদহে, এবার সংক্রমিত হলেন বিডিও

জেলার মুখ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য আধিকারিকদের পর এবার সংক্রমিত হলেন বিডিও। মালদহে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে প্রশাসনের। জানা গিয়েছে, গত কয়েক দিন ধরে জ্বর ও সর্দি-কাশির সমস্যায় ভুগছিলেন পুরাতন মালদহের বিডিও। বুধবার শারীরিক অবস্থায় অবনতি হলে, তাঁর লালারস বা সোয়াব পরীক্ষা করা হয়। করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। বিডিও-কে প্রথমে ভর্তি করা হয়েছিল ওল্ড মালদহের নারায়ণপুর কোভিড হাসপাতালে। বৃহস্পতিবার তাঁকে কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়।

বিডিও কীভাবে করোনা সংক্রমণের শিকার হলেন? স্বাস্থ্য দপ্তরের অনুমান,  বৈঠক করতে কিংবা সরকারি কাজে ব্লকের বিভিন্ন জায়গায় যাতায়াত ছিল তাঁর। আর তাতেই ঘটেছে। ফলে গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কায় উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। করোনা আক্রান্তের পরিবারকে তো বটেই, ওল্ড মালদহের জয়েন্ট বিডিও-কেও হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। শুধু তাই নয়, বিডিও-র সংস্পর্শে এসেছিলেন, এমন ছ'জনের নমুনাও স্বাস্থ্যকর্মীরা সংগ্রহ করে ফেলেছেন বলে জানা গিয়েছে। ়

আরও পড়ুন: 'দেশে জন্য প্রাণ দিতে পারিনি, তাই সুবিচার পাচ্ছি না', আক্ষেপ কার্গিল যুদ্ধের সেনানির

এরইমধ্যে আবার আগাম নোটিশ ছাড়াই বৃহস্পতিবার থেকে বন্ধ করে দেওয়া হল ওল্ড মালদহের বিডিও অফিসও। করোনা আতঙ্কে আপাতত অনির্দিষ্টকালের জন্য অফিস বন্ধ থাকবে বলে খবর। দুর্ভোগ বাড়ল আমজনতার।