শুভজিৎ পুততুণ্ড, বারাসত- হালিশহরে বিজেপি কর্মী খুনে রাজ্য রাজনীতিতে চড়ছে উত্তেজনার পারদ। শনিবার বিজেপির গৃহ সম্পর্ক কর্মসূচিতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছিলেন সৈকত ভাওয়াল। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁকে পিটিয়ে খুন করে বলে অভিযোগ। ঘটনার পর থেকেই বিজেপি কর্মী খুনে অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করে পুলিশ। জারি রয়েছে ধরপাকড়।

আরও পড়ুন-রাতারাতি বদলে গেল তৃণমূলের পার্টি অফিস, গুমটি ইউনিয়ন হল শুভেন্দু অধিকারীর সহায়তা কেন্দ্র

 

বিজেপি কর্মী সৈকত ভাওয়াল খুনের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতরা প্রত্যেকেই তৃণমুল কর্মী বলে দাবি করেছে বিজেপি। যদিও, বিজেপির এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। অভিযোগ, কোনও প্ররোচনা ছাড়াই বিজেপি কর্মীর উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে দুষ্কৃতীরা। বাইকে করে এসে দুষ্কৃতীরা সৈকতকে ঘিরে ধরে। তাঁকে বেধড়ক মারধর করে মাটিতে ফেলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। দলীয় সদস্যরা তাঁকে উদ্ধার করে কল্য়াণী জেএনএম হাসপাতালে ভর্তি করলে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।
আরও পড়ুন-তৃণমূলের কোপে শুভেন্দু ঘনিষ্ট কণিষ্ক পান্ডা, সরিয়ে দেওয়া হল জেলা সম্পাদকের পদ থেকে

এদিকে, রাজ্যে বিজেপি কর্মী খুনের প্রতিবাদ জানিয়ে বীজপুর থানায় বিক্ষোভ দেখায় গেরুয়া শিবির। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি কর্মীরা খুন হচ্ছে। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বিজেপির উপর ক্রমাগত হামলা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ। এরই প্রতিবাদ জানিয়ে বীজপুর থানায় বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি। বিজেপিকর এই থানা ঘেরাও কর্মসূচি ঘিরে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়।