হায়দরাবাদ কাণ্ডে ছায়া এবার রাজ্যেও। এক যুবতীর অগ্নিদগ্ধ দেহ মিলল মালদহে। ধর্ষণ করার পর ওই যুবতীকে পুড়িয়ে খুন করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে তেমনই অনুমান পুলিশের। তবে মৃতার পরিচয় এখনও জানা যায়নি। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারা।

আরও পড়ুন: মুর্শিদাবাদে স্ক্রাব টাইফাসের বলি আরও ১, ছড়াচ্ছে আতঙ্ক

বয়স মেরেকেটে ২০ থেকে ২২ বছর। দেহের ৮০ শতাংশই আগুনে পুড়ে গিয়েছে। গোপনাঙ্গেও মিলেছে আঘাতের চিহ্ন। এক যুবতীর দেহ উদ্ধার করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মালদহের কোতোয়ালি পঞ্চায়েতের টিপাজনি গ্রামে। পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার গ্রামের একটি আমগানে মৃতদেহটি পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, ওই যুবতী অবিবাহিত। ধর্ষণের পর তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়। তারপর প্রমাণ লোপাটের জন্য দেহটি জ্বালিয়ে দেওয়া হয়।  নিয়মাফিক মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। এদিকে এই ঘটনায় আতঙ্কিত কোতুয়ালী গ্রামে পঞ্চায়েতে টিপাজনি গ্রামের বাসিন্দারা। এলাকা এমন নৃশংস ঘটনা ঘটতে পারে, তা ভাবতেই পারছেন না তাঁরা। দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবি তুলেছেন গ্রামবাসীরা।

আরও পড়ুন: মদের আসরে বচসা, যুবককে ছাদ থেকে ফেলে দিল তাঁর বন্ধুরাই

উল্লেখ্য,  কয়েকদিন আগে এমনই নৃশংস ঘটনার সাক্ষী থেকেছে হায়দরাবাদ।  রাতে বাড়ি ফেরার পথে এক পশু চিকিৎসকে ধর্ষণ করে জীবন্ত পুড়িয়ে মারে চার যুবক। ঘটনা পর দিন ওই যুবতীর অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার শোরগোল পড়ে গিয়েছে দেশে। ধর্ষকদের মৃত্যুদণ্ডের দাবি উঠেছে। এই ঘটনার পরপরই বর্ধমানের গুসকরায় মানসিক ভারসাম্যহীন এক মহিলাকে ট্রাকে তুলে পালানোর চেষ্টা করে চালক। কিন্তু সিভিক ভলান্টিয়ারের তৎপরতায় রক্ষা পান ওই মহিলা।  আর এবার মালদহে মিলল যুবতী অগ্নিদগ্ধ দেহ।