Asianet News Bangla

শিশুকে নিয়ে উদ্য়াম নাচ বৃহন্নলাদের, মৃত্যু সদ্য়োজাতের

  •  বৃহন্নলাদের অত্যাচারে মৃত্যু হল এক শিশুর 
  • জোর করে নিয়ে নাচানোর চেষ্টা করে বৃহন্নলারা  
  • হাসপাতালে নিয়ে গেলে শিশুটির মৃত্যু হয়  
  • ঘটনাটি ঘটেছে, ঝাড়গ্রামের শিলদা এলাকায় 
Child dies in Jhargram due to the torture of eunuch
Author
Kolkata, First Published Jan 24, 2020, 6:27 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp


 বৃহন্নলাদের অত্যাচারে মৃত্যু হল এক শিশুর। দেড় মাস বয়সী শিশুকে বাবা মায়ের কোল থেকে জোর করে নিয়ে নাচানোর চেষ্টা করে বৃহন্নলারা। ঘটনাটি ঘটেছে, ঝাড়গ্রাম জেলার শিলদা এলাকায়। পরিবারের দাবি-অসুস্থ শিশু বলে বলা হলেও, মোটা টাকা আদায় করতে জোর করে নাচানো চেষ্টা করতে থাকে তারা। তারপরেই মৃত্যু হয় শিশুটির।এরপর এই শিশুটির বাবা-মা দ্রুত হাসপাতালের দিকে রওনা হয়। তবে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে বলে চিকিৎসকরা জানান। পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ওই বৃহন্নলাদের গ্রেপ্তার করেছে।

আরও পড়ুন, জন্মদিনে স্কুল ছুটি, 'নেতাজি'র সামনে দাঁড়িয়ে ক্ষমা চাইলেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা


ঝাড়গ্রাম জেলার শিলদা এলাকায়, স্থানীয় বাসিন্দা চন্দন খিলা-র গত ডিসেম্বর মাসে জমজ  পুত্র সন্তান হয়েছিল। জন্ম থেকেই একটি শিশুর হৃদ সমস্যা ছিল। তাই জন্মের পরেই তাকে ঝাড়গ্রাম হাসপাতালে ভর্তি রাখতে হয়েছিল। গত দুই সপ্তাহ হল হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছে। ইতিমধ্যেই কোন সূত্র মারফত বৃহন্নলারা জানতে পেরেছিল চন্দন বাবুর বাড়িতে জমজ শিশুর জন্ম হয়েছে। শুক্রবার সকালেই  তাই  শিশুটিকে নাচাতে তিন বৃহন্নলা হাজির হয়ে গিয়েছিল।

আরও পড়ুন, খাদ্যনালিতে বিঁধে সূচ, জটিল অস্ত্রোপচারে প্রাণ বাঁচালেন বাঁকুড়ার চিকিৎসকরা

পরিবারের দাবি-বৃহন্নলার দুই শিশুকেই নিয়ে নাচানোর চেষ্টা করে।   বাধা দেওয়া সত্ত্বেও কারও কথায় কান দেয়নি বৃহন্নলারা, বলে অভিযোগ। ওরা জোর করে মোটা টাকা দাবি করে। এরপর জানায়, দশ হাজার টাকা না দিলে শিশুদের নাচানো বন্ধ হবে না। বারবার বাধা দেয়া সত্ত্বেও অসুস্থ সৃষ্টি কে নিয়ে ওরা অত্যাচার করতে থাকে। ক্রমেই শিশুটি নেতিয়ে পড়লে হাত থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে দেখি শিশুটির অবস্থা খারাপ। এরপরেই শিশুটি মারা যায়। পরিবারসহ স্থানীয়রা এই ঘটনায় উত্তেজিত হয়ে বৃহন্নলাদের আটকে রাখে। উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে খবর শুনে হাজির হয়ে যায় শিলদা থানার পুলিশ। পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ওই বৃহন্নলাদের গ্রেপ্তার করেছে। কেন, কীভাবে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।


 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios