শুভজিৎ পুততুণ্ড, বারাসত-বামেদের ডাকা বনধ ঘিরে বিক্ষিপ্ত অশান্তির ঘটনা রাজ্য জুড়ে। কলকাতাতেও বেশ কয়েকটি জায়গায় অশান্তির ছবি ধরা পড়েছে। বনধকে সফল করার চেষ্টায় ট্রেনও অবরোধ করে সিপিএম-কংগ্রেস কর্মীরা। কৃষি আইন ও অত্যাবশ্যকীয়পণ্য আইন সহ বেশ কয়েকটি কেন্দ্রীয় নীতির বিরোধিতায় সাত দফা দাবিতে বৃহস্পতিবার বনধের ডাক দিয়েছে কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠন। সেই বনধের প্রভাব পড়ল রাজ্যের বেশ কয়েকটি জায়গায়। বারাসতে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভের জেরে তুমুল অশান্তির সৃষ্টি হয়। 

আরও পড়ুন-সরকারি বাস আটকে রাস্তায় বামকর্মীদের ক্রিকেট খেলা, যানজট সামাল দিতে নামল পুলিশ বাহিনী

বনধের সমর্থনে এদিন সকাল থেকে রাস্তায় নামে বাম ও কংগ্রেস সমর্থকরা। দফায় দফায় বিক্ষোভের জেরে উত্তেজনার সৃষ্টি হয় বারাসতের হেলাবটতলায়। বাম ও কংগ্রেস সমর্থকদের উপর ব্যাপক লাঠি চালায় পুলিশ। বিনা প্ররোচনায় লাঠিচার্জের অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। বারাসতে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধের সময় বাধা দেয় পুলিশ। পুলিশের বাধা আটকাতে গেলে পুলিশ ও বাম-কংগ্রেস সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় ওই এলাকা। পরিস্থিতি সামাল দিতে বনধ সমর্থকারীদের উপর ব্যাপক লাঠিচার্জ করে পুলিশ। পুলিশের লাঠির ঘায়ে জখম হয়েছেন বেশ কয়েকজন বাম-কংগ্রেস সমর্থকরা। তবে বিক্ষোভকারীরা অধিকাংশ এসএইআইয়ের দেখা গিয়েছে।

আরও পড়ুন-মাঝেরহাটে পুলিশ-বিজেপি খণ্ডযুদ্ধ, পুলিশের তীব্র সমালোচনা করলেন দিলীপ ঘোষ

বাম ও কংগ্রেসে কর্মীদের উপর পুলিশের লাঠিচার্জের ব্যাপক সমালোচনা করেছে শীর্ষ নেতৃত্ব। বারাসতে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করছিল। শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান বিক্ষোভ করলেও পুলিশ বিনা প্ররোচনায় বনধ সমর্থনকারীদের উপর লাঠি চালায় বলে অভিযোগ। বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ।