করোনা আবহে কাজ হারানোর জেরে মর্মান্তিক পরিণতি হল বাঁকুড়ায়। জমি নিয়ে ভাইয়ের সঙ্গে বিবাদের জেরে ছোট ভাইকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল বিরুদ্ধে। গ্রামবাসীরা দেহটি রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। ঘটনার অভিযুক্ত ভাইদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

আরও পড়ুন-খড়দহে বিদায়ী কাউন্সিলরের বাড়িতে পড়ল বোমা, পিছনে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল

জানাগেছে, কাজের সূত্রে স্ত্রীকে নিয়ে চুঁচড়াতে থাকতেন বছর ছত্রিশের মাধব সিংহ। বড় দাদা হারাধন সিংহ থাকতেন দিল্লিতে। সেজ দাদা ধনঞ্জয় সিংহ রানিগঞ্জে কাজ করতেন। মেজো ভাই ও তাঁর স্ত্রী মানসিক ভারসাম্যহীন। করোনাভাইরাসের থাবায় লকডাউনের জেরে বাড়ি ফেরেন তাঁরা। বাড়িতে আসার পর থেকে জমি নিয়ে ভাইদের মধ্যে অশান্তি লেগেই থাকত। বুধবার সন্ধ্য়ায় বড় ও সেজো দাদার সঙ্গে তীব্র অশান্তি শুরু হয়। বৃহস্পতিবার সকালে ছোট ভাই মাধব সিংহকে ঘরের মধ্যে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পান গ্রামবাসীরা।

ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়া সদর থানার খেজুরবেদিয়া গ্রামে। মৃত মাধব সিংহের মাথায় ও ঘাড়ে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পান গ্রামবাসীরা। ভাই ভাই বিবাদের জেরে মাধবকে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে বলে সন্দেহ হয় গ্রামবাসীদের। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। বড় ও সেজো ভাই মিলে ছোট ভাইকে খুন করেছে বলে দাবি গ্রামবাসীদের। 

আরও পড়ুন-নতুন করে হাতির আতঙ্ক মেদিনীপুরে, দেখুন চাঞ্চল্যকর ছবি

ঘটনায় অভিযুক্ত দুই ভাই, মা ও মেজো দাদার স্ত্রীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। মাধবের মৃতদেহ বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ঘটনায় অভিযুক্তদের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা।