করোনা আক্রান্ত হননি তো? লালারস পরীক্ষার করানোর আগেই আতঙ্কে আত্মহত্যা করলেন এক প্রৌঢ়। বাড়ির কাছে গাছ থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করল পুলিশ। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণার বিষ্ণুপুরে।

আরও পড়ুন: লকডাউন কাড়ল প্রাণ, ছেলের মৃত্যুসংবাদে আত্মহত্যা করলেন বাবাও

মৃতের নাম সুবোধ বনু। বাড়ি, বিষ্ণুপুরের কিশোরপুর এলাকায়। গত বেশ কয়েক দিন ধরেই জ্বরে ভুগছিলেন তিনি। স্থানীয় এক ডাক্তারকে দেখিয়েছিলেন, চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু কিছুতেই জ্বর সারছিল না। করোনা নয় তো?  পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, সুবোধকে করোনার পরীক্ষার করাতে বলেছিলেন চিকিৎসক। এমনিতেই খুব একটা কথা বলতেন না, তার উপর করোনা পরীক্ষা করাতে হবে শুনে রীতিমতো মনমরা হয়ে গিয়েছিলেন ষাটোর্ধ্ব ওই প্রৌঢ়।

রোজ সকালে নাতিকে নিয়ে হাঁটতে যেতেন সুবোধ। শরীর খারাপের মধ্যেও সেই অভ্যাসে ছেদ পড়েনি। শুক্রবার সকালে বাড়ি ফেরার পর বাগানে চলে যান তিনি। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ ঘরে না ফেরায় সন্দেহ হয় পরিবার লোকেরা। বাগানে গিয়ে দেখেন, গাছ থেকে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলছেন সুবোধ বন! ঘটনা জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। খবর দেওয়া হয় বিষ্ণুপুর থানায়। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। এলাকায় শোকে ছায়ায়। 

আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণে বিপদের আশঙ্কা, এবার দার্জিলিং পাহাড়েও লকডাউন জারির সিদ্ধান্ত জিটিএ

উল্লেখ্য, যতদিন যাচ্ছে, করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া যেন ততই বাড়ছে রাজ্যের সর্বত্রই। পরিস্থিতি এমনই যে, গোষ্ঠী সংক্রমণে রুখতে প্রতি সপ্তাহে দু'দিন পুরোদস্তুর লকডাউন জারি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। ভয়ে থরহরিকম্প অবস্থা আমজনতার।  তার জেরেই ঘটে গেল এমন মর্মান্তিক ঘটনা।