আগাম অনুমতি দিয়ে রেখেছিল প্রশাসন। কিন্তু শেষরক্ষা আর হল কই! করোনা আতঙ্কে এবছর মতুয়া মেলা বন্ধ রাখার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের পর্যবেক্ষণ, এই মেলায় প্রচুর মানুষের সমাগম হয়। জমায়েতের কারণে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়বে। তাই এবছর মেলার আয়োজন করা যাবে না।

আরও পড়ুন: করোনা রুখতে বন্ধ তারাপীঠ মন্দির, এবার পুজো হবে অনলাইনে

এ রাজ্যের মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষের সংখ্যা কম নয়।  প্রতিবছর মেলা বসে উত্তর ২৪ পরগণার ঠাকুরনগরে। এই মেলাই 'মতুয়া মেলা' নামে পরিচিত। মেলায় লক্ষাধিক মানুষের জমায়েত হয়। এবছর মেলা হওয়ার কথা ছিল ২২ মার্চ।  স্থানীয় প্রশাসন মেলার অনুমতি দিয়েছিল বলে জানা দিয়েছে। কিন্তু করোনা আতঙ্কে সবকিছুই ভেস্তে গেল! সূত্রের খবর, পরিবর্তিত পরিস্থিতি মতুয়া মেলার বন্ধ রাখার আর্জি নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন স্থানীয় বাসিন্দাদেরই একাংশ। আদালতে রিট পিটিশন দাখিল করেন সুখেন্দ্রনাথ গায়েন নামে এক ব্যক্তি। সেই মামলা শুনানিতে মঙ্গলবার ঠাকুর বাড়ির দুই পক্ষকে নোটিশ পাঠায় হাইকোর্টের বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের সিঙ্গল বেঞ্চ। শেষপর্যন্ত বুধবার এবারের মতো মেলা বন্ধ রাখার নির্দেশ দিল আদালত। 

আরও পড়ুন: করোনায় স্থগিত জীবন-যাপন, নিয়ম ভেঙে ছুটি কাটাতে দিঘায় উপচে পড়া ভিড়

এদিকে বৃহস্পতিবার আবার করোনা ভাইরাস নিয়ে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হল কলকাতা হাইকোর্ট। পরিস্থিতি মোকাবিলায় আদালতের হস্তক্ষেপ দাবি করেছে রমাপ্রসাদ সরকার নামে এক আইনজীবী। কেন্দ্র ও রাজ্য কী কী পদক্ষেপ করেছে, তাও জানতে চেয়েছেন তিনি। মামলাকারীর প্রশ্ন, এ রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় স্বাস্থ্য পরিকাঠামো বেহাল, পর্যাপ্ত চিকিৎসকও নেই। সেক্ষেত্রে করোনা যদি মহামারীর আকার নেয়, তাহলে কী হবে? ২৪ মার্চ মামলার শুনানি হতে পারে বিচারপতি টিবিএস রাধাকৃষ্ণণের ডিভিশন বেঞ্চে।