বৃষ্টি হলেও হাওয়া ঠান্ডা হওয়ার আশা কম। আকাশ পরিষ্কার থাকায় দক্ষিণবঙ্গে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ফলে আদ্রতার কারণে প্যাচপ্যাচে ঘামে ভিজতে হবে সবাইকে।

আপাতত বৃষ্টি কমছে দক্ষিণবঙ্গে। নিম্নচাপের জেরে যে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল তা কেটে গিয়েছে। নিম্নচাপ সরে যাওয়ায় আগামী ৪৮ ঘণ্টায় উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হলেও লাগাতার ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা কম।  তবে আগামী ২ ও ৩ তারিখ বঙ্গোপসাগরে ফের একটি নিম্নচাপ ঘনীভূত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যদি সেই নিম্নচাপ তৈরি হয়, সে ক্ষেত্রে রাজ্যের উপকূলবর্তী জেলাগুলি অর্থাৎ উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ অপেক্ষাকৃত বেশি হবে। আকাশ পরিষ্কার থাকায় দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি ছোঁবে। সেক্ষেত্রে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে পারে ২৬ থেকে ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে।

আরও পড়ুন :চা চক্রে 'আক্রান্ত' দিলীপ, দমকল মন্ত্রী বললেন স্বতঃস্ফূর্ত প্রতিবাদ

আরও পড়ুন :আক্রান্ত দিলীপ ঘোষ, কাউন্সিলরের উপস্থিতিতেই হামলা চালাল ২৫০ তৃণমূল-কর্মী

গত তিন সপ্তাহ ধরে উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণায় বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হয়েই চলেছে। কলকাতায় গত সপ্তাহে যার প্রভাব পড়েছে সর্বোচ্চ। একটু ভারী বৃষ্টিতেই জলমগ্ন হয়ে পড়ে কলকাতার বিস্তীর্ণ অঞ্চল। পরে জলমগ্ন এলাকায় জল না নামায় বিক্ষোভে নামেন উপদ্রুত অঞ্চলের বাসিন্দারা। পরে কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম জানান,মাত্রাতিরিক্ত বৃষ্টিতেই জলমগ্ন হয়েছে কলকাতা। মান্ধাতা আমলের নিকাশি ব্য়বস্থা থাকায় জল নামার নাম নিচ্ছে না। তবুও বহু জায়গায় পাম্প চালিয়ে জল তুলে ফেলা হয়েছে। তাই ফের বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণাবর্তের জেরে নিম্নচাপ সৃষ্টি হলে তার ফল ভুগতে হবে রাজ্যবাসীকে।

আরও পড়ুন :'পলিটিক্য়াল টুরিজম' করছেন, দেবশ্রী নিয়ে আপত্তিতে অনড় শোভন

আরও পড়ুন : ছাদহীন মাথায় ট্রেনেই পড়াশোনা, প্রেরণার আরও এক নাম বালক অর্জুন