বিদ্যুতের টাওয়ার থেকে পড়ে মারা গেল দুই শ্রমিক। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়ছেন,পা ফসকেই এই বিপত্তি। প্রশ্ন উঠেছে জীবনের ঝুঁকি  নিয়েই কি ওই উচ্চতায় উঠেছিল শ্রমিকরা। আধুনিক সাজ সরঞ্জাম ছাড়াই কি ঝাপাতে হয়েছিল কাজে। 

কলকাতার ডাক্তার গৃহিনীর কামুকপনায় অতিষ্ঠ স্বামী, বিয়ে বাঁচাতে পায়ে 'ড্রাইভ' স্ত্রী-র

জানা গেছে, বিদ্যুতের টাওয়ার এ কাজ করছিল ওরা। কিন্তু হঠাতই ঘটে যায় মারাত্বক বিপর্যয় । পা ফসকে সোজা নীচে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু ঘটে দুই শ্রমিকের। মৃতদের নাম মহম্মদ শরিফ ও মহম্মদ শামিম । গুরুতর জখম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয় আরও দুজন। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বিকেলে গোঘাট থানার হাজিপুর এলাকায় । সেখানে বেশ কিছুদিন ধরে বিদ্যুতের হাইটেনশন লাইনে কাজ চলছে। 

কেজরিওয়ালের পথ ধরেই কি বিধানসভার বৈতরণী পার হতে চাইছেন মমতা

এই কাজের বরাত নিয়েছে এল অ্যান্ড টি কোম্পানি । সুউচ্চ এই টাওয়ারগুলি নতুন তৈরি হচ্ছে । এই কাজের জন্য মালদা থেকে প্রায় ষাট, সত্তর জন শ্রমিক এখানে কাজ করছেন বেশ কিছুদিন ধরে । এদিন সন্ধ্যায়  আরামবাগ মহকুমা হাসপাতালে শুয়ে রাজেন মাল নামে এক শ্রমিক জানান , আমরা ৬ জন শ্রমিক ওই টাওয়ারটায় কাজ করছিলাম । ৪ জন ওপরে উঠেছিল আমরা দুজন নীচে ছিলাম । হঠাৎই ওপর থেকে ৪ জন পা ফসকে নীচে আমাদের ওপর এসে পড়ে । এরপর স্থানীয়রা আমাদের এই হাসপাতালে নিয়ে আসে । চোট লাগলেও কোনওক্রমে প্রাণে বেঁচে যাই আমরা।  

জকি হল জেলের বন্দিরাই, যাত্রা শুরু 'রেডিয়ো দমদম' এর