দক্ষিণ দিনাজপুরে প্রশাসনিক বৈঠকে গিয়ে উন্নয়মূলক কাজে জেলা প্রশাসনের গাছাড়া মনোভাব দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই মালদহে গিয়ে পুলিশের ভূমিকায় অসন্তোষ প্রকাশ করেন মমতা। পুলিশকে আরও 'শক্ত' হওয়ার পরামর্শ দিলেন তিনি। 

মঙ্গলবার মালদহে প্রশাসনিক বৈঠকে প্রথমে জেলায় দুর্ঘটনা বৃদ্ধি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ কর্মসূচির উপরে আরও জোর দেওয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন তিনি। এর পরেই নাম না করে মালদহে ঝাড়খণ্ড দেশম পার্টির প্রভাব বৃদ্ধি নিয়েও পুলিশকে কার্যত কাঠগড়ায় তোলেন তিনি। 

মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, ঝাড়খণ্ড থেকে এসে একটি রাজনৈতিক দলের দুই নেতা নিয়মিত মালদহ জেলায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে পথ অবরোধ করছে। অথচ পুলিশ কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না। পুলিশকে শক্ত হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী জেলার পুলিশকর্তাদের উদ্দেশে বলেন, 'এত ভয় কীসের? পুলিশে চাকরি করলে এত ভয় পেলে চলে না। আরও রাফ অ্যান্ড টাফ হতে হবে। আর তা না হলে ছড়া লিখুন, নাটক করুন!'

আরও পড়ুন- 'কাজ না হলে লোকে আমাকে ধরবে', দক্ষিণ দিনাজপুরে গিয়ে ক্ষুব্ধ মমতা

আরও পড়ুন- 'টাকা নিয়ে ঝগড়া করবে না', গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মেটাতে পুরপ্রধানকে হঁশিয়ারি মমতার

 মমতা অভিযোগ করেন, আদিবাসীদের ভুল বুঝিয়ে টাকা দিয়ে অবরোধে বসাচ্ছে ঝাড়খণ্ড থেকে আসা রাজনৈতিক নেতারা। ফলে পুলিশ যাতে আদিবাসীদের প্রতি সহানুভূতিশীল থাকে, সেই পরামর্শও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। 

প্রসঙ্গত এর আগে কোচবিহারে দলীয় কর্মিসভাতেও একইভাবে নাম না করে হায়দরাবাদের আসাদউদ্দিন ওয়াইসির দল এআইএমআইএম-এর বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর অভিযোগ ছিল, বিজেপি-র থেকে টাকা নিয়ে কোচবিহারের সংখ্যালঘুদের ভুল বোঝাচ্ছে ওই দলের নেতারা। এআইএমআইএম-এর পর এবার মমতার নিশানায় ঝাড়খণ্ড দেশম পার্টি।