বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে দেওরের হাতে খুন হলেন বৌদি। আর বৌদিকে খুন করে মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী হলেন দেওরও। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়ার ধানতলার দৌলায়।  ইতিমধ্য়েই অভিযোগ পেয়ে মৃতার শশুর এবং শাশুড়িকে আটক করেছে ধানতলা থানার পুলিশ। 

আরও পড়ুন, এনআরএস-এ ৮ জনের শরীরে করোনা, আক্রান্তদের ৬ জন স্ত্রী রোগ বিভাগে ভর্তি

সূত্রের খবর, ধানতলা থানার দৌলার বাসিন্দা কাজল সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক করে বিয়ে হয় প্রতিবেশী লিটন সরকারের। অভিযোগ বিয়ের পর থেকেই শ্বশুরবাড়ির লোকজন কাজল সরকারের উপর অত্যাচার চালাত। পাশাপাশি তাকে নানা সময়  কুপ্রস্তাব দিত দেওর অর্ণব সরকার। কিন্তু সেই কুপ্রস্তাবে কখনোই সায় দেয়নি। অভিযোগ,শুক্রবার সন্ধ্যায় বৌদি কাজলি সরকারকে কুপ্রস্তাব দেয় অর্ণব। অভিযোগ, এর প্রতিবাদ করায় কাজলের উপর আচমকাই চড়াও হয়ে তাকে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে অর্ণব। পরে পরিবারের লোকজন কাজলকে  রানাঘাট মহাকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। ঘটনার পরই অভিযুক্ত দেওর, লিটন সরকার বাড়ির পাশেই গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। 

আরও পড়ুন, লকডাউনে করোনা আক্রান্তের সঙ্গেই মদ্যপান, সাত বন্ধু পরিবার সহ ৪০ জন কোয়ারেন্টিনে

অপরদিকে, মেয়ের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে শশুর এবং শাশুড়িকে আটক করেছে ধানতলা থানার পুলিশ। একই পরিবারেই দুই অস্বাভাবিক মৃত্য়ুতে গোটা গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। ইতিমধ্য়েই পুরো ঘটনাটা খতিয়ে দেখছে ধানতলা থানার পুলিশ।

আরও পড়ুন, টিকিয়াপাড়া কাণ্ডে কড়া পদক্ষেপ নিল পুলিশ, গ্রেফতার প্রধান অভিযুক্ত শাকিব সহ আরও ১৩

 

 

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর

রাজ্য়ে একাধিক করোনা রিপোর্ট 'ফলস' নেগেটিভ, কী বলছেন চিকিৎসকরা

রিপোর্ট 'নেগেটিভ' -পাঠানো হল বাড়ি, ভূল থাকায় ফের ডাক, বাঙ্গুর হাসপাতালে মৃত্যু করোনা আক্রান্তের