শুভেন্দুর পর বিধানসভা ভোটের আগে বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে নিয়ে অস্বস্তিতে পড়েছিল তৃণমূল। দলের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অসন্তোষ প্রকাশ করার পর দিকে দিকে পড়ছিল রাজীব বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের পোস্টার। কয়েকটি জায়গায় একই ফ্রেমে শুভেন্দু-রাজীবের পোস্টারও পড়েছে। এই অবস্থায় দলের সঙ্গে তিনি তাঁর রাজনৈতিক অবস্থান স্পষ্ট করেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্য়ায়। এরপর, সেভাবে দাদার অনুগামী ব্যানারে রাজীবের পোস্টার চোখে পড়েনি। কিন্তু, উত্তর দিনাজপুরের একটি ঘটনা নতুন করে জল্পনা সৃষ্টি করল রাজ্য রাজনীতিতে।

আরও পড়ুন-'জিতেন মনে হয় গ্য়াস খেয়ে লিখেছে', আসানসোলের মেয়রের পত্র বোমায় বিস্ফোরক ফিরহাদ

রাজীব বন্দ্য়োপাধ্যায়ের সমর্থনে তাঁর ছবি লাগানো ব্যানার ও ফ্লেক্স ভর্তি একটি গাড়ি বাজেয়াপ্ত করল পুলিশ। রাজীবের ছবি সহ ওই গাড়ি কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল? তা এখনও স্পষ্ট নয় পুলিশের কাছে। পুলিশ সূত্রে খবর, রবিবার রাত দেড় নাগাদ একটি ফোন আসে। সেই ফোনের সূ্ত্র ধরে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি লাগানো পোস্টার সহ হোর্ডিং ভর্তি গাড়িটি পুলিশ বাজেয়াপ্ত করে। রায়গঞ্জ পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান অরিন্দম সরকারের অভিযোগের ভিত্তিতে গাড়িটে বাজেয়াপ্ত করে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

আরও পড়ুন-ভোটের আগে পদ ছাড়লেন প্রবীণ তৃণমূল নেতা, বিজেপিতে যোগদানের ইঙ্গিত

রায়গঞ্জের ডিএসপি রিপন বল জানান, এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত চারজনকে আটক করা হয়েছে। গাড়িটিকে রাতের অন্ধকারে গোপনে কোথায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল? কেনই বা এত পরিমান পোস্টার নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল? এই প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে পুলিশের কাছে। তবে আটক করা চারজনের কাছ থেকে বিস্তারিত তথ্য পাওয়ার চেষ্টা করছে তদন্তকারীরা। যদিও, রাজীবের ছবি লাগানো পোস্টার উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে।