নবান্ন অভিযানের পর উত্তরকন্যা অভিযান করেছিল বিজেপি যুব মোর্চা। সোমবার শিলিগুড়িতে বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযানে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয়। উত্তরকন্যা অভিযানে পুলিশের বাধা পেয়ে কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল শিলিগুড়ির তিনবাত্তি মোড়। পুলিশ ও বিজেপি কর্মী ধস্তাধস্তিতে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির তৈরি হয়। এই উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে উলেন রায় নামে এক বিজেপি কর্মীর মৃত্যু। পুলিশের গুলিতে বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করে বিজেপি। 

আরও পড়ুন-কলকাতায় পা দিয়েই সরকারকে উৎখাতের ডাক, মমতাকে নিশানা করে কী বললেন নাড্ডা


বিজেপির ওই উত্তরকন্যার অভিযানের বিশৃঙ্খল পরিস্থিতিতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি দিলীপ ঘোষ ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়। এই ঘটনায় হিংসা ও অশান্তির ছড়ানোর অভিযোগে পুলিশ তিন বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। তাঁরা হলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং নিশীথ প্রামাণিক। হিংসা ও অশান্তি ছড়ানোর অভিযোগে তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে শিলিগুড়ি পুলিশ।

আরও পড়ুন-গুরতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি বুদ্ধদেব, শ্বাসকষ্ট ভুগছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী

উত্তরকন্য়া অভিযানে বিজেপি কর্মী উলেন রায়ের মৃত্যু নিয়ে টানাপোড়েন অব্যাহত রাজ্য রাজনীতিতে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী পুলিশের শাটগানের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে বিজেপি কর্মীর। এই ঘটনার তদন্তভার নিয়েছে রাজ্যের তদন্তকারী সংস্থা সিআইডি। তা নিয়েও রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বিজেপি নেতা মুকুল রায়।