Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Kali Puja 2021: কালী পুজোর আগে বিপুল পরিমাণে নিষিদ্ধ শব্দ বাজি উদ্ধার বর্ধমানে, পুলিশের জালে ১

বর্ধমানে (Burdwan) নিষিদ্ধ শব্দ বাজির বিরুদ্ধে অভিযান চালালো পুলিশ। পুলিশি  অভিযানে উদ্ধার হয় প্রায় ৪০কেজি শব্দ বাজি, একজনকে আটক করা হয়েছে। 

Police recovered 40 kg of banned fire crackers in Burdwan RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 24, 2021, 11:10 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

 বর্ধমানে (Burdwan) নিষিদ্ধ শব্দ বাজির বিরুদ্ধে অভিযান চালালো পুলিশ। পুলিশি  অভিযানে উদ্ধার হয় প্রায় ৪০কেজি শব্দ বাজি। আটক করা হয়েছে একজনকে। শ্যামা পুজোর আগে নিষিদ্ধ শব্দ বাজির (Banned fire crackers) বিরুদ্ধে অভিযান চালালো বর্ধমান থানার পুলিশ (Burdwan Police)।

আরও পড়ুন, Covid-19: শুধু কলকাতাতেই কোভিডে আক্রান্ত ৩০০ ছুঁইছুঁই, আশঙ্কা বাড়িয়ে সুস্থতার হার আরও কমল রাজ্যে
শনিবার রাতে বর্ধমান শহরের  তেঁতুলতলা বাজার, রাণীগঞ্জ বাজার সহ শহরের বিভিন্ন জায়গায় বাজির দোকানে অভিযান চালানো হয়। বর্ধমানের ভাতছালা এলাকার একটি দোকান থেকে ৪০কেজি শব্দ বাজি উদ্বার করে পুলিশ। শব্দ বাজি রাখার অপরাধে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে বায়ু দূষণ রুখতে ২০২০ যে কোনও রকম বাজি বিক্রি ও পোড়ানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল কলকাতা হাইকোর্ট। সেই নিষেধাজ্ঞা ঘোষণার পর থেকেই জেলাজুড়ে পুলিশী অভিযান শুরু হয়। এখনও  চলছে করোনার দাপট। তাই নিষিদ্ধ শব্দ বাজির বিক্রি রুখতে নজরদারি চালাচ্ছে পুলিশ। যদিও শহরের বিভিন্ন বাজারে তল্লাশি চালিয়ে একটি মাত্র দোকান ছাড়া শব্দ বাজির বিরুদ্ধে সেভাবে কোনো সফলতা পায়নি বর্ধমান থানার পুলিশ। ইতিমধ্যেই শহরের বিভিন্ন জায়গায় লুকিয়ে চুরিয়ে বাজি বিক্রি চলছে বলে অভিযোগ উঠছে। তাই শব্দ বাজির বিক্রি রুখতে এই ধরনের অভিযান চলবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

আরও পড়ুন, সকালে হালকা শীতের আমেজ শহরে, উত্তরবঙ্গে হালকা-মাঝারি বৃষ্টি, প্রবল বর্ষণ দক্ষিণ ভারতে

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালে সমস্ত রকমের বাজি পোড়ানোর উপর রাজ্য জুড়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করে কলকাতা হাইকোর্ট। বাজি পোড়ানোর পাশাপাশি বাজি বিক্রিতেও পুরোপুরি নিষিদ্ধ করেছে আদালত। শুধুমাত্র কালীপুজো নয়, দীপাবলি ও ছট পুজো, কার্তিক পুজোতেও রাজ্য জুড়ে বাজি নিষিদ্ধ করে  হাইকোর্ট।  এই নির্দেশ দেয় বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্য়ায় ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের ডিভিশন বেঞ্চ। ২০২০ সালে  কোভিড পরিস্থিতিতে দুর্গাপুজোর মতো কালীপুজোতেও দর্শক শূন্য রাখতে এবং বাজি পোড়ানো, বিক্রি ও তৈরি যাতে বন্ধ থাকে তার জন্য আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন হাওড়ার বাসিন্দা অজয় কুমার দে। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট।

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios