সপ্তাহ দু' য়েক আগে দক্ষিণ ২৪ পরগণার বারুইপুর থেকে পাচার হয়ে যাওয়া বছর ষোলোর এক নাবালিকাকে উদ্ধার করল বারুইপুর থানার পুলিশ। রবিবার ওই নাবালিকাকে উদ্ধার করে বারুইপুর থানায় নিয়ে আসেন পুলিশকর্মীরা। এই ঘটনায় দু' জন অভিযুক্তকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

পুলিশ সুত্রে খবর, গত ৬ অক্টোবর থেকে বারুইপুর থানার ধপধপি এলাকার বাসিন্দা ওই নাবালিকা নিখোঁজ হয়ে যায়। পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন দিকে খোঁজাখুঁজি করেও তার খোঁজ না পেয়ে অবশেষে বারুইপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার তদন্তে নেমে বারুইপুর থানার পুলিশ জানতে পারে, ওই নাবালিকাকে মহারাষ্ট্রে পাচার করা হয়েছে। দু' লক্ষ টাকার বিনিময়ে রাজু ও সালাম নামে দুই যুবক তাকে বিক্রি করে দিয়েছে। 

আরও পড়ুন- যৌন হেনস্থার শিকার রূপান্তরকামী মহিলা, পুলিশ বলল আগে লিঙ্গের প্রমাণ চাই

আরও পড়ুন- একাধিক সম্পর্কে গৃহবধূ, প্রেমিকের রহস্যমৃত্যুর পরই বিবস্ত্র করে শাস্তি বীরভূমে

বিষয়টি জানতে পেরে গত ১৪ অক্টোবর বারুইপুর থানার এস আই সমরেশ দাসের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল রওনা দেয় মহারাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে। সেখানে গিয়ে মহারাষ্ট্র পুলিশের সহায়তায় কোকনিপাড়া নামক এলাকা থেকে ওই নাবালিকাকে উদ্ধার করে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, রাজু নামের ওই যুবক নাবালিকার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। তাকে বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে মহারাষ্ট্রে নিয়ে এসে দু' লক্ষ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দেয়। 

ধৃতদের বিরুদ্ধে নারী পাচার, অপহরণ- সহ একাধিক মামলা রজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। নাবালিকা উদ্ধারে বারুইপুর থানার পুলিশের এই তৎপরতায় প্রশংসা করেন নাবালিকার পরিবারের সদস্যরা।