লোকচক্ষুর গাঁজার চাষ করা হচ্ছিল জনবসতিপূর্ণ এলাকায়। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বেআইনি কাজকর্ম বন্ধ করে দিল জেলা পুলিশের স্পেশাল অপারেশন  গ্রুপ বা এসওজি। আটক করা হয়েছে একজনকে। উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারের ঘটনা। 

আরও পড়ুন: গুনিনের নিদান, অসুস্থ মা-কে বাঁচাতে প্রতিবেশী মহিলাকে 'কোপাল' যুবক

আরও পড়ুন: বিয়ের আসর জুড়ে সত্যজিৎ, গড়িয়ায় চমকে দিলেন নব দম্পতি

ইটাহার থানার বাঙার এলাকায় থাকে দিলীপ মজুমদার। নিজের বাড়িতেই গাঁজার চাষ করছিল সে। কেউ যাতে টের না পায়, সেকারণে উঁচু পাঁচিল দিয়ে বাড়িটিকে ঘিরেও ফেলেছিল দিলীপ। পাঁচিল এতটাই যে, বাইরে থেকে দেখে কিছু বোঝার উপায় ছিল না। কিন্তু শেষপর্যন্ত পুলিশের নজর আর এড়াতে পারল না অভিযুক্ত! গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে এলাকায় হানা দেন জেলা পুলিশের  স্পেশাল অপারেশন  গ্রুপ বা এসওজি।  তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, দিলীপে বাড়ির উঠোন ও লাগোয়া এলাকায় প্রচুর গাঁজা গাছের সন্ধান পাওয়া যায়। বেশ কয়েকটি গাছ কেটে আবার উঠোনে শুকতেও দেওয়া হয়েছিল।  সমস্ত গাছ নষ্ট করে দিয়েছেন তদন্তকারীর। আটক করা হয়েছে দিলীপ মজুমদারকে। কিন্তু ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় বাড়ির ভিতরে কেন গাঁজা চাষ করা হচ্ছিল? প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, বাণিজ্যিকভাবেই গাঁজা চাষ করত দিলীপ। বিক্রি করা হত বাইরে। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।