বিজেপি-র ডাকা বারো ঘণ্টার বনধে কার্যত স্তব্ধ ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চল। সাংসদ অর্জুন সিংয়ের উপর পুলিশের হামলার প্রতিবাদে এই বনধ ডেকেছে বিজেপি। এ দিন সকালে কাঁকিনাড়া স্টেশনে রেল অবরোধও করেন বিজেপি সমর্থকরা। কিছুক্ষণ পরে অবশ্য সেই অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। দেরিতে হলেও শিয়ালদহ এবং কল্যাণীর মধ্যে ট্রেন চলাচল করছে বলে জানা গিয়েছে। 

রেল অবরোধের পাশাপাশি কল্যাণী রোড, ঘোষপাড়া রোডেও অবরধো করেন বনধ সমর্থকরা। কল্যাণী রোডেও একাধিকবার অবরোধ করা হয়। পরে তা তুলে দেয় পুলিশ। কাঁকিনাড়া বাজারে পুলিশ বিজেপি-র অবরোধ তুলতে গেলে ফের উত্তেজনা তৈরি হয়। বনধের জেরে কার্যত স্তব্ধ রয়েছে সরকারি, বেসরকারি বাস-সহ অন্যান্য যান চলাচল। যদিও অশান্তির আশঙ্কায় রাস্তাতেই বেরোননি এলাকার বাসিন্দারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ব্যারাকপুর, কাঁকিনাড়া, ভাটপাড়া, জগদ্দল, শ্যামনগরের মতো এলাকায় প্রচুর সংখ্যক পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। বন্ধ রয়েছে শিল্পাঞ্চলের বেশিরভাগ কলকারখানা। কাঁকিনাড়া জুট মিলের সামনেও অবরোধ করেন বিজেপি সমর্থকরা। 

আরও পড়ুন- খাসতালুকে রক্ত ঝরল অর্জুনের, গুরুতর আহত সাংসদকে আনা হল কলকাতায়

আরও পড়ুন- রণক্ষেত্র কাঁকিনাড়া, মাথা ফাটল বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের

সোমবার পার্টি অফিসের দখলকে কেন্দ্র করে শ্যামনগরে সংঘর্ষ বাঁধে বিজেপি এবং তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে। সেই উত্তেজনা পড়ে ছড়িয়ে পড়ে কাঁকিনাড়ায়। মাথা ফাটে ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের। তিনি কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বিজেপি সাংসদের অভিযোগ, ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মনোজ ভার্মার মারেই মাথা ফেটেছে তাঁর। এ দিনও বিজেপি সমর্থকরা বার বারই মনোজ ভার্মার অপসারণের দাবি জানিয়েছেন। সবমিলিয়ে বিজেপি-র ডাকা বনধকে ঘিরে থমথমে হয়ে রয়েছে ব্যারাকপুর, কাঁকিনাড়া এলাকা।