পুজোর আগে ফের চলবে কলকাতা-দিঘা বাস, পরিবহনমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে কর্মবিরোতি প্রত্যাহার বাসকর্মীদের

| Sep 26 2022, 03:47 PM IST

পুজোর আগে ফের চলবে কলকাতা-দিঘা বাস, পরিবহনমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে কর্মবিরোতি প্রত্যাহার বাসকর্মীদের

সংক্ষিপ্ত

পুজোর আগে বাস পরিষেবা ফের স্বাভাবিক করতে এবার গোটা বিষয়টায় হস্তক্ষেপ করলেন পরিবহণমন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী। দীর্ঘ টানাপড়েনের পর অবশেষে পরিবহনমন্ত্রীর আশ্বাসে কর্মবিরোতি প্রত্যাহারে রাজি হয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

বেতনবৃদ্ধি সহ একাধিক দাবিতে টানা ছয় দিন ধরে বন্ধ ছিল দক্ষিণবঙ্গের একাধিক রুটের বাস পরিষেবা। পুজোর আগে এতদিন বাস বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছিলেন সাধারণ মানুষ। পুজোর আগে বাস পরিষেবা ফের স্বাভাবিক করতে এবার গোটা বিষয়টায় হস্তক্ষেপ করলেন পরিবহণমন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী। দীর্ঘ টানাপড়েনের পর অবশেষে পরিবহনমন্ত্রীর আশ্বাসে কর্মবিরোতি প্রত্যাহারে রাজি হয়েছেন আন্দোলনকারীরা। পুজোর মুখে বাস পরিষেবা ফের স্বাভাবিক হওয়ায় স্বস্তি পেয়েছেন সাধারণ মানুষ থেকে পরিবহন দফরত। 

দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার অস্থায়ী কর্মীদের টানা আন্দোলনের জেরে বাস এবার নড়েচড়ে বসল পরিবহন দফতর। সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এলেন খোদ পরিবহনমন্ত্রী। অস্থায়ী কর্মীদের দাবি মেনে মাসে ২৬ দিন কাজের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বেতন বৃদ্ধি পুজোর পর ছুটি সংক্রান্ত দাবিদাওয়া নিয়েও আলোচনা করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন পরিবহণমন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী। 

Subscribe to get breaking news alerts

পরিবহনমন্ত্রীর আশ্বাসে আপাতত কর্মবিরোতি প্রত্যাহারে রাজি হয়েছে আন্দোলনকারীরা। প্রথম আন্দোলনের সূত্রপাত হয়েছিল দিঘা ডিপো থেকেই। তাই আপাতত শুধু দিঘা ডিপো থেকেই কর্মবিরোতি প্রত্যাহার করা হল।

আগে দিঘা ডিপো থেকে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার ৯০টি বাস চলত। করোনা পরিস্থিতি, লকডাউন যাবতীয় কিছুর জেরে এই সংখ্যা নেমে দাঁড়ায় ১৪-এ। ফলে কার্যত কাজহারা দিঘা ডিপোর ১৭৫ জন অস্থায়ী কর্মী। বাসের সংখ্যায় বিরাট পরিবর্তনের জেরে মাসে মাত্র ১০-১২ দিন কাজ পাচ্ছে অস্থায়ী কর্মীরা। আন্দোলনকারীদের পাশে দাঁড়িয়েছে স্থানীয় তৃণমূল পরিচালিত শ্রমিক সংগঠন। দাবি না পূরণ হলে লাগাতার আন্দোলনের হুঁশিয়ারিও দিয়েছিল তৃণমূল পরিচালিত শ্রমিক সংগঠন INTTUC।

পুজোর মুখে কলকাতা-দিঘা রুটে বাস বন্ধ থাকায় সমস্যায় পড়েছেন দিঘা-খড়গপুর, দিঘা-বারাসত , দিঘা-দুর্গাপুর রুটের যাত্রীরাও। এই রুটগুলিতে SBSTC-র বাস বন্ধ থাকায় ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে পর্যটনও। এই সময় পর্যটকদের ঢল নামে দিঘায়। পর্যটন ব্যবসার ক্ষেত্রে যথেষ্ঠ গুরুত্বপূর্ণ এই সময়। তাই একদিকে যেমন ফাঁপড়ে পড়েছে পর্যটকরা, অন্যদিকে ক্ষতির মুখে পর্যটন ব্যবসাও। 

আরও পড়ুন - আরও পড়ুন: 'শীঘ্রই শহরে নামছে বেসরকারি বাস', কী বললেন সিন্ডিকেটের সাধারন সম্পাদক

SBSTC দিঘা ডিপোর  ইনচার্জ সোমনাথ ঘোষ জানিয়েছেন, "উর্ধতনকে জানিয়েছি,তারা যা বলবেন  তারপর দেখা যাবে।" মূলত বেতন বৃদ্ধি সহ একাধিক দাবি নিয়ে বিক্ষোভ অস্থায়ী কর্মীদের। এখন দেখার পুজোর আগে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হবে, না কি বাঙালির পুজোয় এবার ব্রাত্য হবে দিঘা ভ্রমণ। 

আরও পড়ুন:  অটো-ট্যাক্সিতেও এবার 'যত সিট তত যাত্রী', স্বাস্থ্য বিধি নিয়ে কড়াকড়ি

Top Stories