Asianet News BanglaAsianet News Bangla

বেপরোয়া গাড়ির ধাক্কায় বাড়ি ফেরার পথে মৃত্যু হল তিন মহিলার, প্রতিবাদে বিক্ষোভ স্থানীয়দের

এই দুর্ঘটনার পরই মৃতদেহ ফেলে রাস্তা আটকে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দার। ঘাতক লরিটিকে আটক করা গেলেও চালক পলাতক। 

Three women killed in car accident in Murshidabad bsm
Author
Kolkata, First Published Oct 16, 2021, 11:02 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

ক্ষত এখনো দগদগে। মাত্র একদিন আগেই প্রতিবেশী রাজ্য ছত্রিশগড়ের যশপুর জেলায় দশেরা চলাকালীন একটি বেপরোয়া গাড়ি জনতার ভিড় এর উপর দিয়ে চলে যাওয়ার ফলে মৃত্যু হয় একজনের আহত হয় একাধিক। শনিবার পার্শ্ববর্তী মুর্শিদাবাদেই (Murshidabad) ঘটে গেলো এমনই এক ভয়াবহ ঘটনায় (accident) মৃত্যু হল তিনজনের (3 Dead)। গুরুতর জখম হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন আরো একজন।


এদিকে এই দুর্ঘটনার পরই মৃতদেহ ফেলে রাস্তা আটকে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দার। ঘাতক লরিটিকে আটক করা গেলেও চালক পলাতক। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এদিন মুর্শিদাবাদের সীমান্তবর্তী  বেরামঘাট এলাকায় নিত্য দিনের মতো  মাঠে ছাগল চরাতে গিয়েছিলেন গ্রামের মহিলারা।বেলা গড়িয়ে সন্ধ্যে নামার মুখে বাড়ি ফিরে আসার তোড়জোড় করছিলেন সকলে। এমন সময়ে ঘটে যায় ভয়াবহ দুর্ঘটনা। বেরামঘাটের পাশের  মূল সড়কের ওপর দিয়ে গাড়ির পিছন দিকের চাকা খুলে যাওয়ার পরে নিয়ন্ত্রনহীন অবস্থায় একটি লরি ছুটে আসে। কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ছাগল চরাতে যাওয়া মহিলাদের দলটিকে  পিষে দিয়ে এগিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় গাড়ির চাকার পিষে  ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় সুমতি মণ্ডল(৪৯), জ্যোৎস্না মণ্ডলের(৫০)। তাঁদের বাড়ি ফরাক্কার সুধনা গ্রামে। মাথায় গুরুতর জখম অবস্থায় আশালতা মণ্ডল (৫৭) নামের মহিলাকে স্থানীয়রা চিৎকার শুনে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই তার মৃত্যু ঘটে। শেষ পাওয়া খবরে জানা যায়,অষ্টমী মণ্ডল নামের আরও একজন মৃত্যুর সঙ্গে হাসপাতালের বেডে পাঞ্জা লড়ছেন।

Terror Attack: ফুচকাওয়ালা ও ছুতোর মিস্ত্রিকে গুলি করে হত্যা, জঙ্গিহানায় রক্তাক্ত ভূস্বর্গ

Terrorist Arrest: জম্মু ও কাশ্মীরে বড় সাফল্য, পুলওয়ামায় ধৃত এক শীর্ষ স্থানীয় লস্কর কমান্ডার

CWC Meet: অবশেষে সভাপতি নির্বাচনের পথেই হাঁটল কংগ্রেস, নির্বাচনের সূচি নিয়ে আলোচনা বৈঠকে

এদিকে ঘটনার খবর চাউর হতেই পুরো এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া যেমন নেমে এসেছে পাশাপাশি মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।যদিও পরিস্থিতি সামাল দিতে বিশাল পুলিশবাহিনী গোটা এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালিয়ে ঘাতক গাড়িটিকে আটক করলেও চম্পট দেয় তার চালক।।এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দিনের-পর-দিন প্রশাসনিক নজরদারির অভাবে লরি থেকে শুরু করে পণ্যবাহী অন্যান্য গাড়ি বেপরোয়া গতিতে এখানে যাতায়াত করে ‌ তাদের ঠিকঠাকভাবে নজরদারি করা হয় না। আর যে কারণেই চোখের সামনে মর্মান্তিকভাবে চাকায় পিষ্ট হয়ে ও ভরে প্রাণ গেল তিন মহিলার। পুরো এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে উত্তেজনা কমাতে।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios