আশিস মণ্ডল, বীরভূম:  লকডাউন না মেনে বাইক নিয়ে রাস্তা ঘোরাঘুরি! তৃণমূল নেতাকেও রেয়াত করল না পুলিশ। তাঁকে ধরে নিয়ে গেল থানায়। পরে অবশ্য অভিযুক্তকে ছেড়ে দেওয়া হয়। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের রামপুরহাটে।

আরও পড়ুন: বাঁশ উঁচিয়ে মহিলাদের মারছেন তৃণমূল নেতা, গড়বেতার ছবি ভাইরাল হতেই গ্রেফতার দাপুটে

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে যথারীতি লকডাউন সফল করতে রামপুরহাট শহরে পথে নামে পুলিশ। শহরের প্রাণকেন্দ্রে পাঁচমাথায় মোড়ে খোদ মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সৌম্যজিৎ বড়ুয়ার নেতৃত্বে চলছিল ধরপাকড়। হেলমেট ছাড়া বাইক চালিয়ে যাচ্ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের স্থানীয় বুথ সভাপতি সুজিত পাল। মহকুমা পুলিশ আধিকারিক নিজেই তাঁর পথ আটকান এবং রাস্তায় বেরোনোর কারণ জানতে চান। তৃণমূল নেতা বলেন, ওষুধ কিনতে বেরিয়েছেন। কিন্তু প্রেসক্রিপসন দেখাতে পারেননি বলে অভিযোগ। এরপর বাইক-সহ শাসকদলের ওই নেতাকে ধরে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। কিছুক্ষণ পর অবশ্য তাঁকে ছেড়েও দেওয়া হয়।  

আরও পড়ুন: বাড়ির ফেরার পথে তৃণমূলের ছাত্রনেতার রহস্যমৃ্ত্যু, জাতীয় সড়কে মিলল রক্তাক্ত দেহ

লকডাউন ভাঙলেন কেন? তৃণমূল নেতা সুজিত পালের সাফাই,  'আমি সুগারের, প্রেসারের রোগী। প্রতিদিন ওষুধ লাগে। দোকান থেকে ওষুধ আনতে বেড়িয়েছিলাম। নির্দিষ্ট একটি দোকান থেকে নিয়মিত ওষুধ নিই। প্রেসক্রিপশন লাগে না। প্রেসক্রিপশন কলকাতায় ছেলের কাছে আছে।' তাঁর আরও দাবি, সবটা খুলে বলার পরই নাকি পুলিশ ছেড়ে দিয়েছে।