করোনা আতঙ্কের মাঝেই জোড়া ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল  বাংলা। বাঁকুড়ায় দুবার কম্পন অনুভূত করল মানুষ। এদিন  দুপুর ১১.২৪ মিনিটে হঠাৎই দুলে ওঠে মাটি।  লক ডাউনে ঘরবন্দিমানুষ বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসেন।  অনেকে দোকান ছেড়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ে।  লক ডাউনের মাঝে এমন ভূমিকম্পে স্বাভাবিক ভাবেই আতঙ্কিত জেলার মানুষ। পরে শঙ্খ বাজিয়ে ভূমিকম্পের কথা জানান দেন এলাকার মহিলারা। যদিও এখনও ভূমিকম্পে কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। 

মুখ্য়মন্ত্রীর ফর্মুলায় দেশে করোনায় মৃত ১৫, মৃত্যু নিয়ে দিদিকে খোঁচা দিলীপের

এলাকাবাসীরা  জানান, এদিন পরপর দুটি ভুমিকম্প অনুভূত হয় বাঁকুড়ায়। প্রথমটি ১১.১৯ মিনিটে, উৎসস্থল লাক্ষাদ্বীপ, মাটির ১০ কিলোমিটার নীচে ছিল এর উৎসস্থল, রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ৫.৪। ২ সেকেন্ড স্থায়ী হয় এই কম্পন। দ্বিতীয় কম্পনটি অনুভূত হয় ১১.২৪.০২ মিনিটে। উৎসস্থল দুর্গাপুর থেকে ১৫ কিলোমিটার নীচে। রিখটার স্কেলে কম্পন মাত্রা ছিল ৪.১। তবে এই জোড়া কম্পনের তথ্য দিচ্ছে মেটেরলজিক্যাল বিভাগ, বাঁকুড়া। আলিপুর আবহাওয়া দফতর শুধুমাত্র দ্বিতীয় কম্পনের তথ্য দিয়েছে।

রাতে ৯১ সকালেই ৯৯, বাংলায় করোনা নিয়ে নয়া তথ্য় দিল কেন্দ্র..

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার রাত ১.৩৩.২৮ মিনিটে সিকিমে একটি ভূমিকম্প হয়েছিল। যেখানে কম্পনের মাত্রা ছিল ৩.১। তারই আফটার এফেক্ট হতে পারে বাংলার ভূমিকম্প।  বাঁকুড়ার প্রতিবেশী জেলা পুরুলিয়াতেও এই ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। শেষ খবর পাওয়া পর্য়ন্ত এদিন সকালে শুশুনিয়া পাহাড় জ্বলতে দেখেছে এলাকার মানুষ।
৩ সেকেন্ডেই করোনা সাফ, কলকাতার পুর বাজারগুলিতে বসছে জীবাণুনাশক চ্যানেল.