আশিষ মণ্ডল, বীরভূম:  করোনায় রক্ষা নেই, এবার এবার ছড়াল অজানা রোগ। প্রাণ গিয়েছে তিনজন শিশুর। গুরুতর অসুস্থ আরও পাঁচজন শিশু।  যারা এখনও সুস্থ রয়েছে, তাদের অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে গিয়েছেন পরিবারের লোকেরা। ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে বীরভূমের মাড়গ্রামে। জলের নমুনা সংগ্রহ করেছেন স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্মীরা।

আরও পড়ুন: মহামারীর এই মরশুমে মৃত্যুর পরেও 'শান্তি নেই', মৃত পথচারীর দেহ সরানোর নির্মম ছবি পুরুলিয়ায়

বমি ও হাল্কা জ্বরের উপসর্গ ছিল। মাত্র চোদ্দো দিনের ব্যবধান তিনজন শিশু মারা গিয়েছে মাড়গ্রামে এঁঠোল পাড়ায়। শনিবার রাতে মারা যায় বছর চারেকের আহিল শেখ। তার বাবা আযাকাল শেখ বলেন, 'দুপুরের দিকে বমি শুরু হয়। প্রথমে আমরা বসোয়া ব্লক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়। তারপর রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে হয়ে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাতের দিকে ছেলের মারা যায়। গ্রামের বাসিন্দা রেমি বিবি বলেন, 'যেভাবে শিশুরা আক্রান্ত হচ্ছে তাতে আমরা আতঙ্কিত। বাড়ির শিশুদের অন্যত্র সরিয়ে দিয়েছি।' 

আরও পড়ুন: করোনা আবহে এবার সাপের আতঙ্ক, সতর্কবার্তা জারি করল স্বাস্থ্য দপ্তর

খবর পেয়ে রবিবার এঁটোলপাড়া গ্রামে যান স্বাস্থ্যদফতরের কর্মীরা। এলাকা বেশ কয়েকটি বাড়ি ঘুরে আক্রান্ত শিশুদের দেখেন, সংগ্রহ করা হয় জলের নমুনাও। কিন্তু রোগটা ঠিক কী? তা এখনও নির্ধারণ করা যায়নি। স্থানীয় বসোয়া ব্লক স্বাস্থ্য বিএমওএইচ অভিজিৎ রায় চৌধুরী বলেন, 'রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকেও জলের নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য দপ্তর। আমরাও এলাকা ঘুরে দেখলাম। কিন্তু রোগের কারণ এখনও পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। একটি জীবাণু শরীরে ছড়িয়ে পড়ে শিশুদের মৃত্যু হচ্ছে। আমরা সব কিছু নজরে রেখেছি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।'