আশিস মণ্ডল, বীরভূম-পাঁচিল কাণ্ডের পর প্রাক্তণীদের নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। বিশ্বভারতীর আবাসিক প্রাক্তণীদের জন্য নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি করল বিশ্বভারতী। সেখানে বলা হয়েছে, বিশ্বভারতীয় সবরকম কাজে প্রাক্তণীদের যোগদান করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। বিশ্বভারতীয় সব ধরনের কর্মসূচিতে এবার থেকে যোগদান দেবেন প্রাক্তণীরা।

আরও পড়ুন-করোনার থাবায় মণ্ডপে দর্শনার্থীদের প্রবেশ নিষেধ, কঠিন সিধান্ত নিল বেহালার দেবদারু ফটক ক্লাব

বিশ্বভারতীর বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, মন্দিরে প্রতি বুধবার উপাসনায় যোগদান করতে হবে। বছরে যে কটা বৈতালিক হয় সেখানে প্রাক্তণীদের যোগদান করা বাধ্যতামূলক। বিশ্বভারতীর যেসব সিগনেচার ইভেন্ট আছে যেমন পৌষমেলা, বসন্ত বন্দনা, বসন্ত উৎসব, বৃক্ষরোপণ এই ধরনের কর্মসূচি যোগদান করতে হবে বিশ্বভারতীর প্রাক্তণীদের।

আরও পড়ুন-মেদিনীপুরে সিপিএম-কংগ্রেসের মহামিছিল, কাতারে কাতারে লোক দেখে আত্মবিশ্বাসী সূর্যকান্ত

পাশাপাশি, বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, মন্দির সংস্কার, ক্যাম্পাস ফান্ড, দুঃস্থ ছাত্রছাত্রীদের জন্য সাহায্য তহবিলের  জন্য প্রতি খাতে ৫ লক্ষ টাকা করে দিতে হবে প্রাক্তণীদের। পেনশনারের চিকিৎসা বাবদ যে টাকা বিশ্বভারতী থেকে বেআইনিভাবে নেওয়া হয়েছে সেই অর্থ বাবদ প্রাক্তণীদের ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা প্রাক্তণীদের জোগাড় করতে হবে। এছাড়াও, বিশ্বভারতীর জমি দখল মুক্ত করতে প্রাক্তণীদের অনুরোধ করা হয়েছে। বিশ্বভারতীতে অনুষ্ঠিত স্বচ্ছভারত অভিযানে প্রাক্তণীদের সবাইকে যোগদান করতে বলা হয়েছে। বিশ্বভারতীর যে সমস্ত ভাল কাজ হচ্ছে তা সোশ্যাল মিডিয়া মারফত প্রচার করতে হবে। কোনও ধরনের কুৎসা, অপপ্রচার হলে তা বন্ধের ব্যবস্থা করতে হবে প্রাক্তনীদের।

আরও পড়ুন-লন্ডন এর পুজো এবার হবে কলকাতায়, শুভেচ্ছা জানালেন অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত

বিশ্বভারতীর এই বিজ্ঞপ্তি ঘিরে জল্পনা শুরু হয়েছে প্রাক্তণীদের মধ্যে। এতদিন বিশ্বভারতীর উন্নয়নমূলক কাজে যোগদান করতেন প্রাক্তণীরা। কিন্তু এবার থেকে সব কাজে প্রাক্তণীদের যোগদানের সিদ্ধান্ত নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। যদিও, এবিষয়ে প্রাক্তণীদের কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।