দুর্গাপুজোয় নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত।  এবছর দর্শকহীন অবস্থায় রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলকাতার গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকটি পুজো ক্লাব। দর্শনার্থীরা প্রতিমা দর্শনের জন্য আর মণ্ডলে প্রবেশ করতে পারবেন না। বাইরে থেকেই জায়ান্ট স্ক্রিনের মাধ্যমে প্রতিমা দর্শন করে বাড় ফিরতে হবে দর্শকদের। করোনা পরিস্থিতির জেরে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পুজো উদ্যোক্তারা।

আরও পড়ুন-মেদিনীপুরে সিপিএম-কংগ্রেসের মহামিছিল, কাতারে কাতারে লোক দেখে আত্মবিশ্বাসী সূর্যকান্ত

দুর্গা পুজোর পর করোনাভারাসে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আগেই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসক মহল। পুজোর সময় মেলামেশা, ঘোরাফেরা অতিরিক্ত মাত্রায় বৃদ্ধির কারনে করোনা আক্রান্ত ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি রয়েছে। এই অবস্থায় ভিড় এড়াতে এবং করোনা সংক্রমণ রুখতে দুর্গাপুজোয় নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেহালার দেবদারু ফটক ক্লাব।

আরওল পড়ুন-করোনা সংক্রমণ রুখতে বাংলায় বন্ধ হোক দুর্গাপুজো, মামলা দায়ের কলকাতা হাইকোর্টে

দুর্গাপুজোয় এবছর ৪৮ বছরে পা দিয়েছে দেবদারু ফটক ক্লাব। এবছর করোনা আবহের কারনে কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ওই ক্লাবের পুজো উদ্যোক্তারা। ওই মণ্ডপে প্রতিমা দর্শন করতে এসে যাতে করোনা সংক্রমণ না হয় তার জন্য দর্শনার্থীদের প্রবেশ পুরোপুরি নিষিদ্ধ করলেন তাঁরা। মণ্ডপ থেকে একশো মিটার দূর থেকে প্রতিমা দর্শন করা যাবে। এছাড়াও বাইরে বসানো থাকবে জায়েন্ট স্ক্রিন। তার মাধ্যমে প্রতিমা দর্শন করতে পারেবন পুজো উদ্যোক্তারা। পাশাপাশি, সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যেও প্রতিমা দর্শন করার ব্যবস্থা করলে বেহালার দেবদারু ফটক ক্লাব।

আরও পড়ুন-কী জাতীয় রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়েছিল নবান্ন অভিযানে, জানতে চেয়ে অমিত শাহকে চিঠি লকেটের

পুজো মণ্ডপে শুধু মাত্র থাকবেন পাড়ার বাসিন্দা এবং পুজো উদ্যোক্তারা। কিন্তু বাইরের দর্শনার্থীদের জন্য প্রতিমা দর্শন পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অন্যদিকে সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের পুজোতেও এবছর প্রতিমা দর্শন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পুজো উদ্যোক্তারা।