ক্রাইম ব্রাঞ্চের অফিসার পরিচয় দিয়ে খোদ সরকারি স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষিকাকে 'হুমকি'! মন্ত্রীর নির্দেশে এক যুবককে আটক করল পুলিশ। শিলিগুড়ির ঘটনা।

আরও পড়ুন: চাকরির নামে গৃহবধূর সঙ্গে কয়েক হাজার টাকার প্রতারণা, পুলিশের জালে কনস্টেবল

ঘটনা ঠিক কী? ২০১৭ সালে স্কুলে ছেড়ে চলে যায় শিলিগুড়ি গার্লস হাইস্কুলের এক ছাত্রী। তেমনই দাবি করেছেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা মুনমুন লাহিড়ি। তাঁর অভিযোগ, গত কয়েক দিন ধরে ওই ছাত্রীকে ফের ভর্তি নেওয়ার জন্য ফোনে হুমকি দিচ্ছিল এক যুবক। সে আবার নিজেকে ক্রাইম ব্রাঞ্চের অফিসার বলে দিয়েছিল। শেষপর্যন্ত বুধবার সকালে অভিযুক্ত যুবক যখন সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে স্কুলে হাজির হয়, তখন আর চুপ করে থাকেননি ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষিকা। ঘটনাটি পরিচালন সমিতির সভাপতি তথা রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবকে জানান তিনি। আর তাতেই কাজ হয়। জানা গিয়েছে, মন্ত্রীর ফোন পেয়ে শিলিগুড়ি গার্লস হাইস্কুলে যায় পুলিশ। আটক করা হয় রাধারমণ রায় নামে ওই যুবককে।

আরও পড়ুন: এম এ পাশ মেয়েটির প্রেমিক ছিল এইট পাশ পঞ্চানন, বাড়ির আপত্তিতে গলায় দড়ি দিল রিমা

কিন্তু যে ছাত্রীকে নিয়ে এত কাণ্ড, তাকে কী ফের স্কুলে ভর্তি নেওয়া হবে? শিলিগুড়ি গার্লস হাইস্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা মুনমুন লাহিড়ি জানিয়েছেন, বিষয়টি স্কুল পরিদর্শক বা ডিআই-কে জানিয়েছেন। এখনও পর্যন্ত তিনি কোনও নির্দেশ দেননি। স্কুলছুট ছাত্রীকে ফের ভর্তি নেওয়ার বিষয়টি ভেবে দেখা হচ্ছে।