মহারাষ্ট্রে সংঘাত চলছিলই। তার রেশ এবার গিয়ে পড়ল দিল্লিতেও। কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন শিবসেনা নেতা অরবিন্দ সাওয়ান্ত। ফলে বিজেপি-র সঙ্গে শিবসেনার পাকাপাকি বিচ্ছেদের জল্পনা আরও জোরালো হয়েছে। 

মোদী সরকারের ভারী শিল্প এবং রাষ্ট্রায়ত্ত্ব প্রতিষ্ঠানের দফতরের মন্ত্রী হিসেবে কাজ করছিলেন অরবিন্দ সাওয়ান্ত। এ দিন সকালে টুইট করে নিজের পদত্যাগের ইচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। তাঁর দাবি, শিবসেনাই সত্যের পক্ষে রয়েছে। সাংবাদিক সম্মেলন করে তিনি আনুষ্ঠানিক ভাবে নিজের পদত্যাগের কথা ঘোষণা করবেন বলে জানিয়েছেন এই শিবসেনা নেতা। 

আরও পড়ুন- সরকার গড়বে না, পিছিয়ে এল বিজেপি, বল এবার শিবসেনার কোর্টে

আরও পড়ুন- অভিমান নিয়েই পদত্যাগ করলেন দেবেন্দ্র ফড়নবিস, এবার মহারাষ্ট্র কোন পথে

সোমবারই বিজেপি জানিয়ে দিয়েছে, মহারাষ্ট্রে তারা সরকার গঠন করবে না। ইতিমধ্যেই রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি শিবসেনাকে সরকার গঠনের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। তারপরেই শিবসেনা সাংসদ মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দেওয়ার এই ঘোষণা শিবসেনা- বিজেপি-র ফাটল আরও চওড়া হওয়ারই ইঙ্গিত। 

২৮৮ আসন বিশিষ্ট মহারাষ্ট্র বিধানসভায় শিবসেনার হাতে ৫৬ জন বিধায়ক রয়েছে। সোমবার রাতে সাড়ে সাতটার মধ্যে তাদের সরকার গঠনের দাবি জানাতে হবে। 

সরকার গঠনের জন্য এনসিপি এবং কংগ্রেসের সমর্থন প্রয়োজন শিবসেনার। কিন্তু এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার ইতিমধ্যেই শর্ত দিয়েছেন, তাদের সমর্থন পেতে গেলে আগে শিবসেনাকে এনডিএ ছেড়ে বেরিয়ে আসতে হবে। শিবসেনা সাংসদের মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দেওয়ার ঘোষণা সেই বিচ্ছেদেরই প্রথম ধাপ বলে মনে করা হচ্ছে।