নানান মানুষের নানা রকম সখ। তবে সমস্ত সখের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় একটি হল অ্যাকোয়রিয়ামে রঙিন মাছ রাখা। মানসিক শান্তি থেকে মানসিক বিকাশ সব দিক থেকেই সাহায্য করে এই রঙিন মাছ। বিশেষজ্ঞদের মতে এই সখ আপনাকে মেডিটেশনের সমান ফল প্রদাণ করে। বাস্তু মতেও এই মাছের গুরুত্ব অপরিসীম। বাড়িতে এই মাছ রাখা অত্যন্ত মঙ্গলজনক বলে মনে করা হয়। তাই বাস্তুমতে বাড়িতে এই মাছ রাখার পরামর্শ কেন দেওয়া হয়েছে জেনে নেওয়া যাক।

আরও পড়ুন- ফাল্গুন মাসে জন্ম, তবে আপনার মধ্যে এই রয়েছে এই বিশেষ গুণ

বাস্তু মতে এই মাছগুলিকে গৃহস্থের জন্য অত্যন্ত শুভ বলে মনে করা হয়। মনে করা হয় এই মাছগুলির মধ্যে এমন অন্তর্নিহিত শক্তি রয়েছে যা আপনার ঘরের নেগেটিভ শক্তি দূর করতে সাহায্য করে। পাশাপাশি ঘরের শান্তি বজায় রেখে আপনার সংসার করে তোলে সমৃদ্ধ। তবে এই রঙিন মাছ রাখতে হবে নির্দিষ্ট কিছু স্থানে, তবেই তার থেকে মিলবে সুফল।

বাস্তু অনুযায়ী, ঘরের উত্তর-পূর্ব কোনে এই মাছের জায়গা রাখার উত্তম স্থান। শোওয়ার ঘরে কখনই এটি রাখবেন না, এরফলে দাম্পত্যসুখ নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। রান্নাঘরেও এটি রাখবেন না। বাড়ির প্রধান দরজার বাম দিকে এটি রাখলে খুব ভাল ফল পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন- মেষ রাশির কতটা উন্নতি হবে ফাল্গুন মাসে, দেখে নিন

বাস্তুমতে, রঙিন মাছ রাখার ক্ষেত্রে নজর রাখতে হবে একটি বিশেষ বিষয়ে। কোন মাছ মরে গেলে তৎক্ষনাত তা ফেলে দিয়ে তার পরিবর্তে ওই একই রঙের মাছ এনে রেখে দিন। ফেংশুই মতে মৃত রঙিন মাছ বেশি সময় ধরে ঘরে রাখা অমঙ্গল। এর ফলে ঘরে নেগেটিভ শক্তি বৃদ্ধি পায়। তাই মাছ মরে গেলেই তা রিপ্লেস করুন যত দ্রুত সম্ভব।

বাস্তুমতে অ্যাকোয়রিয়ামে গ্রহের সংখ্যা অনুযায়ী ৯ টি মাছ রাখা উচিত। তবেই ঘর ভরে উঠবে সুখ ও সমৃদ্ধি তে। এই ৯টি মাছের মধ্যে ৮ টি রঙিন মাছ ও ১ টি কালো মাছ রাখুন। নবগ্রহনের সঙ্গে সংখ্যা মিলিয়ে এই কটি মাছ নিয়ম মেনে বাড়িতে রাখতে পারলে বাস্তু মতে ফিরবে আপনার সৌভাগ্য।