Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Durga Puja: দশমীতেও হামলা বাংলাদেশের মন্দিরে, বেধড়ক মার ভক্তদেরও

দশমীতেও পার পেল না বাংলাদেশের মন্দির, নোয়াখালির ইসকন মন্দিরে তাণ্ডবলীলা চালালো দুষ্কৃতিরা । এমনকি মন্দিরে উপস্থিত ভক্তদের মারধর করা হয়,  একজন ভক্তের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে অভিযোগ জানিয়েছেন ইসকন মুখপাত্র।

 

 

The miscreants attacked the ISKCON temple in Noakhali Bangladesh during Durga Puja Dashami RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 16, 2021, 9:36 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

দশমীতেও (Dashami) পার পেল না বাংলাদেশের মন্দির (Bangladesh Temple)। নোয়াখালির ইসকন মন্দিরে (ISKCON Temple) তাণ্ডবলীলা চালালো দুষ্কৃতিরা। মন্দিরের কিছু জিনিসে আগুন লাগানোর অভিযোগ তুলেছেন ইসকন কর্তৃপক্ষ। এমনকি মন্দিরে উপস্থিত ভক্তদের মারধর করা হয় বলে অভিযোগ জানিয়েছেন ইসকন মুখপাত্র।

 

 

আরও পড়ুন, 'বাংলাদেশি সংখ্যালঘুদের রক্ষা করতে রাজ্য-কেন্দ্র এক হও', হামলায় প্রতিবাদ সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের

জানা গিয়েছে, নোয়াখালির চৌমুহনীতে প্রায় ৫০০ জন দুষ্কৃতী মন্দিরে হামলা চালিয়েছে। হামলার নের্তৃত্ব দিয়েছেন নাকি আওয়ামীলিগেরই নেতা। হামলায়  একজনের মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে জানা গিয়েছে। মৃতের নাম জতন কুমার সাহা। বিভিন্ন এলাকায় মন্দিরে মন্ডপে হামলার প্রতিবাদে এদিন চট্টগ্রামে হরতালের ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খীষ্ট্রান ঐক্য পরিষদ। এই ঘটনার পরে ইসকন টুইট করে জানিয়েছে, 'বাংলাদেশের নোয়াখালিতে ইসকন মন্দির এবং ভক্তদের উপর একটি হিংস্র হামলা হয়েছে। এই হামলায় মন্দিরের ক্ষতি হয়েছে। এবং  একজন ভক্তের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আমরা সকল হিন্দুর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনার জন্য বাংলাদেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।'

আরও পড়ুন, By Election: পুজো পেরোতেই দোরগড়ায় ভোট, মণ্ডপেই জনসংযোগ শোভনদেবের

প্রসঙ্গত, ঘটনার সূত্রপাত কুমিল্লার একটি পুজো প্যাণ্ডালকে কেন্দ্র করে। সোশ্যাল মিডিয়ায় কুমিল্লার ওই পুজো কমিটির বিরুদ্ধে কোরানের অবমাননা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তারপরই ওই পুজো মণ্ডপে একদল দুষ্কৃতী হামলা চালায় বলে অভিযোগ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হয় বাংলাদেশের পুলিশ। স্থানীয় প্রতিবেদগুলিতে বলা হয়েছে বাংলাদেশের দূর্গাপুজো প্যাণ্ডালে হামলার ঘটনায় কংপক্ষে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। কুমিল্লার হিংসার ঘটনার পরই চাঁদপুরের হাজিগঞ্জ চট্টগ্রাম ও বাংশখালি ও কক্সবাজারের পেকুয়া মন্দির এলাকাতে ভাঙচুর ও তাণ্ডবের ঘটনা ঘটে। বাংলাদেশ প্রশাসন জানিয়েছে, যেসব এলাকায় হিংসার ঘটনা ঘটেছে সেখানকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আধা সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। 

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios