অনেক দিন ধরেই অসুস্থতায় ভুগছিলেন তিনি। সেই কারণে ভর্তি ছিলেন ই.এম বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে। শনিবার থেকেই স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটে। জানা গিয়েছে, আশা অডিও-র কর্ণধার নিউমোনিয়ার সংক্রমণে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছিলেন হাসপাতালে আর শেষ রক্ষা হয়নি।

আরও পড়ুন- বাহুবলী করে তিনি নয়নের মণি, সেই প্রভাসের জন্মদিনে রইল জানা অজানা তথ্য়

চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন ছিল রক্তের। সেই জন্য বহু অভিনেতা অভিনেত্রী রক্তের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেদনও করেন। অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তও আবেদন করেছিলেন এ পজিটিভ গ্রুপের রক্তের জন্য। মহুয়া লাহিড়ির মৃত্যুতে গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে সাংস্কৃতিক জগতে। সঙ্গীত জগতে প্রতিষ্ঠা পেতে বহু শিল্পীকে সাহায্য করেছেন তিনি। তাই বাংলা সিনেমা জগত চির কৃতজ্ঞ।

আরও পড়ুন- নিউইয়র্কে পাড়ি দিল গুমনামী, আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে এবার সৃজিত-প্রসেনজিৎ জুটি

হাসপাতাল থেকে তার কসবার বাসভবন নিয়ে যাওয়া হয় তাঁর দেহ। সেখানেই শেষ শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করছেন সকলে।  অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।