করোনা ভাইরাস যেহারে বাড়ছে তাতে দিনদিন পরিস্থিতি আর চরমে পৌঁছাছে। তারমধ্যেই মনের জোরে বিধিনিষেধ মেনে একটু একটু করে কাজ এগোতে হচ্ছে। একটু কোথায় হাত লাগলে স্যানিটাইজ করতে করতেই যেন পার হচ্ছে যাচ্ছে অর্ধেক সময়। যদি কিছু করার নেই পরিস্থিতি শিখিয়ে দিয়েছে। আর এই পরিস্থিতিতেই গতকাল থেকে ফের শুটিং শুরু হয়েছ সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বায়োপিক 'অভিযান'-এর । সেইমতোই বায়োপিক নিয়ে এগোচ্ছেন পরিচালক-অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। 

আরও পড়ুন-সুশান্তের মৃত্যুর একমাস, পরিচারককে টানা ৬ ঘন্টা জেরার পর পুলিশি তদন্তে ফের অভিনেতার দিদি...

বয়স ৮৫। তবু করোনাকে বুড়ো আঙুলকে দেখিয়ে দাপটের সঙ্গে শুটিং ফ্লোরে হাজির বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। মুখে মাস্ক, সামাজিক দূরত্ব সমস্তটা বজায় রেখেই শুটিংয়ে চলছে একের পর এক শট। ঈক তাতে বেশ সাবলীল তিনি। এত কিছু নিয়ম মেনে শুটিংয়ে অসুবিধা হলেও বেশ কয়েকমাসে এই নিয়মের সঙ্গেই যেন অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে সকলেই। গতকাল যোথপুর পার্ক ও তপন থিয়েটারে চলেছে অভিযান-এৎ শুটিং। তবে শুধু সৌমিত্র নন, শুটিংয়ে  উপস্থিত ছিলেন  যীশু সেনগুপ্ত ও দেবশঙ্কর হালদার।

আরও পড়ুন-করোনার হানা এবার সারা আলি খানের বাড়িতে, চিন্তা বাড়ছে হেভিওয়েট পরিবারে...

প্রবীণ অভিনেতার সৌমিত্রর জন্মদিনের দিনই  নয়া চমক দিয়েছিলেন টলিতারকা পরমব্রত। অভিনেতার জন্মদিনের দিনই তার বায়োপিকের ঘোষণা করেছিলেন অভিনেতা তথা পরিচালক পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই ছবির শ্যুটিং শুরু হয়ে গিয়েছিল। লকডাউনের আগেই খানিকটা হয়ে গিয়েছিল কাজ। কিন্তু ১৭ মার্চ আচকমাই সব বন্ধ হয়ে গেল। একটানা এতদিন বন্ধ থাকার পর ফের শুরু হল সফর। আপাতত তিন দিন ধরে চলবে শুটিং। ১৪-১৭ তারিখ পর্যন্ত শুটিংয়ের শিডিউল রাখা হয়েছে। এরপরের শুট হবে জুলাইয়ের শেষে। পুরো ছবির শুটিং আগস্টের মধ্যেই শেষ করতে চাইছে টিম অভিযান। 

ছবিতে যুবক সৌমিত্রের ভূমিকায় যিশুকে দেখা যাবে, আর তেমনই প্রৌঢ় বয়সে অভিনেতা সৌমিত্র নিজেই অভিনয় করবেন। ছবিতে উত্তম-সুচিত্রার ভূমিকায় দেখা যাবে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও পাওলি দামকে।  এছাড়া পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের ভূমিকায় দেখা যাবে পরিচালক কিউকে। বায়োপিক নিয়ে বেশি মাতামাতি বলিউডেই রয়েছে। এবার সেই তালিকায় ধীরে ধীরে টলিউডও আসতে চলেছে। দীর্ঘ ষাট বছরের কেরিয়ারে তিনশোর বেশি ছবি রয়েছে সৌমিত্র ঝুলিতে। ছবির স্ক্রিন-প্লের দায়িত্ব রয়েছে চিত্রনাট্যকার পদ্মনাভ দাশগুপ্তের উপর। ব্যক্তিগত জীবন থেকে বর্তমান জীবন সবটাই ফুটে উঠবে এই বায়োপিকে। এছাড়াও তৎকালীন বাংলা ইন্ডাস্ট্রির নানান অজানা তথ্যও উঠে আসবে এই ছবিতে।