করোনার প্রকোপের মাঝেও সমস্ত নিয়মাবলী মেনেই শুরু হয়েছিল শ্যুটিং। পুরনো ছন্দে ফিরে চলছিল ধারাবাহিকের শ্যুটিং। হঠাৎ করোনার প্রকোপ। এবারে কোনও অভিনেতা, অভিনেত্রীর উপর নয়। সোজা আর্থিক দিকে। একের পর এক টেলিজগতের অভিনেতা অভিনেত্রীদের জীবনে আসছে আর্থিক সংকট। ২০ শতাংশ পারিশ্রমিক কমিয়ে দেওয়া। প্রাপ্য পারিশ্রমিক না দেওয়া সঙ্গে চলছে খানিক হুমকিও। প্রস্তাবে রাজি না হলেই সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে ধারাবাহিক থেকে। এমনই ঘটেছে বেশ কয়েছেন তারকাদের সঙ্গে। 

আরও পড়ুনঃগায়ের হলুদ থেকে মেহেন্দি, রানা ও মিহিকার বিয়ের ঝলক নেটদুনিয়ার হটকেক

অভিনেতা জিতু কামালের বিভিন্ন জনপ্রিয় ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। রাঙিয়ে দিয়ে যাও, রাগে অনুরাগে, মিল তিথি। সম্প্রতি গুড়িয়া যেখানে গুড্ডু সেখানে ধারাবাহিকে অভিনয় করতে দেখা যায় তাঁকে। এক নামী চ্যানেলের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ তিনি। সম্প্রতি তিনি জানান, এপ্রিল মাস থেকে মে মাস পর্যন্ত নিজের প্রাপ্য পারিশ্রমিকের মাত্র ৩৫ শতাংশ পেয়েছিলেন। অন্য কাজের সুযোগ আসায় আর্থিক আয় বাড়ার আশা দেখতে চুক্তি ভাঙার কথা চ্যানেলকে জানান জিতু। হঠাৎই তাঁকে কিছু না জানিয়ে চুক্তি মুক্ত করে দেওয়া হয়। তারপর থেকেই কোনও কাজ পাচ্ছেন না তিনি। 

আরও পড়ুনঃপ্রসেনজিৎ-জিৎ-দেব, প্রতি ছবিতে পারিশ্রমিকের দৌড়ে কে রয়েছেন এগিয়ে

 

অন্যদিকে জয়বাবা লোকনাথ ধারাবাহিকে লকডাউনের আগে বারদী গ্রামের জমিদারের ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে সপ্তর্ষি রায়কে। প্রযোজনা সংস্থা থেকে তাঁর পারিশ্রমিক কমিয়ে দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এনওসি দিয়েছিলেন সপ্তর্ষি। তারপরই তাঁর জায়গায় আনা হয় অন্য অভিনেতাকে। এখন জমিদারের ভূমিকায় অভিনয় করছেন অর্ঘ্য মুখোপাধ্যায়। সরকারের দ্বারা নির্দেশ করা নিয়মাবলী মেনেই চলছে শ্যুটিং। যার জেরে বেড়েছে খরচ। এবং এই কোপ পড়ে সরাসরি অভিনেতা-অভিনেত্রীদের উপর। ২০ শতাংশ কম টাকার বিনিময় কাজ করানোর অভিযোগ উঠে বিভিন্ন প্রযোজনা সংস্থার বিরুদ্ধে। চুনিপান্নার অভিনেত্রী পায়েলের কথায়, পারিশ্রমিক ২০ শতাংশ সত্যিই কমানো হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃ'জয় শ্রী রাম' ধ্বনি বলিউডে, অযোধ্যায় রামমন্দিরের শিল্যানাসে কঙ্গনা-অনুপম খেরের অভিনন্দন

আরও পড়ুনঃশ্রীমা-গৌরবের প্রেমালাপ, সোশ্যাল মিডিয়ায় কী ডেডিকেট করলেন একে অপরকে

সৌদামিনীর সংসারের নায়িকা সুস্মিলী আচার্য, নিজের কাজ ভালবাসেন বলেই শত সমস্যার মধ্যে অভিনয় করে যাচ্ছে। সূত্রের খবর অসীম মুখোপাধ্যায়, অনুরাধা রায় টাকা কমানোর প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ধারাবাহিক থেকে বাদ পড়েছেন। তবে এর মাঝেও উঠেছে স্বজনপোষণ এবং ফেভারিটিজমের অভিযোগ। সকলকে টাকা কমানোর প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে না বলেই জানা গিয়েছে। শ্রীময়ী ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন টোটা রায়চৌধুরী। তাঁর কথায় তিনি এই বিষয় কিছুই জানেন না। তাঁকে এবং তাঁর চেনা কাউকেই পারিশ্রমিক কামনোর প্রস্তাব দেওয়া হয়নি। অথচ প্রযোজক শৈবাল বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, তিনি শিল্পী এবং কলাকুশলীদের টাকা কমানোর অনুরোধ করলে তাঁরা কেউ রাজি হননি। অন্যদিকে জয় বাবা লোকনাথ ধারাবাহিকে ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় টাকা কমানোর প্রস্তাবে রাজিই হননি।